টিভি চ্যানেলে বিস্ফোরক অভিষেক, শ’খানেক প্রার্থী নিয়ে সমস্যা, দ্রুত মিটে যাবে

0

Last Updated on February 7, 2022 2:14 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। ২২৭২ টি ওয়ার্ডে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে তৃণমূল (Trinamool Congress)। তার মধ্যে ১০০ টির কাছাকাছি ওয়ার্ড নিয়ে কিছু সমস্যা রয়েছে, শীঘ্রই সমস্যা মিটে যাবে বলে আশ্বাস দিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। শনিবার এক সাক্ষাৎকারে অভিষেক (Abhishek Banerjee)বলেন, দুটি প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে কিছু ভুলভ্রান্তি রয়েছে। খুব দ্রুত এটা ঠিক হয়ে যাবে।

- Advertisement -

তৃণমূল ছেড়ে ফের দলে প্রবেশ করলে প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে
অভিষেকের কথায়, অনেকেই বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে (BJP) যোগদান করেন। নির্বাচনের পরে অনেকেই ফের একবার তৃণমূলে যোগদান করেন কয়েকজন। আমার বক্তব্য পরিষ্কার, পাপের প্রায়শ্চিত্ত করে তাদের দলে ঢোকাব। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Rajib Banerjee)ত্রিপুরায় পাঠিয়েছি, তিন বছর পরে থাকবে, দল এসে যারা এতদিন লড়াই করেছে তাদের মাথার ওপর চড়ে বসবে এটা হবে না। সব্যসাচী দত্তকে (Sabyasachi Dutta) মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নমিনেশন দিয়েছেন। পাপের প্রায়শ্চিত্ত না করে দলে থাকা যাবেনা। আমি উদার নই, আমি প্রাক্টিক্যাল, আমি বিজ্ঞানসম্মত।

বিজেপি কে হারাতে গেলে কংগ্রেসের ওপর ভরসা করা যাবে না
এদিন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক পরিষ্কার করে জানিয়ে দিয়েছেন, কংগ্রেসের ওপর কোনভাবেই ভরসা করবে না তৃণমূল। বিজেপিকে হারাতে তৃণমূল একাই সক্ষম। কংগ্রেস আদতে দ্বিতীয় আসন পেয়ে খুশি থাকতে চায়। সিপিএমের দ্বিচারিতা ও ধরে ফেলেছে মানুষ।বিধানসভার আগে কেউ মোদির বিরুদ্ধে বলেনি, সবার টার্গেট ছিল মমতা। কেরালায় লড়ছেন কংগ্রেসের বিরুদ্ধে, আর এখানে তৃণমূলকে গালাগালি করছেন, এটা হতে পারে না। ‌ কংগ্রেস মুখে এক কথা বলে কাজে অন্যকথা করে। আমরা বিধানসভায় সমাজবাদী পার্টিকে সমর্থন করছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) যাচ্ছেন। ‌ কিন্তু কংগ্রেস ওখানে বিজেপিকে সমর্থন করছে বকলমে। কংগ্রেস দু’নম্বরে থাকতে কমফর্টেবল ফিল করে। কংগ্রেস-বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করে পারবে না। তৃণমূলে বাংলার বাইরে কোন ইউনিট ছিলনা, কিন্তু এখন তৈরি হচ্ছে। ২০১৬ সালে তৃণমূলের সঙ্গে ২০২১ এর তৃণমূলের অনেক পার্থক্য আছে।
গোয়ায় ভোট কাটতে যায়নি
এদিন অভিষেক বলেন, আমরা গোয়ায় (Goa) ভোট কাটতে যাইনি। বিজেপির সঙ্গে সেটিং করলে আমরা ছত্রিশগড়, পাঞ্জাব কিংবা রাজস্থানে গিয়ে কংগ্রেসের বিরোধিতা করতাম। গোয়ায় আমরা সংগঠন শক্তিশালী করতে শুরু করেছি। যাদের টাকা নিতে দেখা গেছে এদিন সাক্ষাৎকারে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বলেন, শুভেন্দুর বিরুদ্ধে সুদীপ্ত সেন চিঠি লিখে বলেছে, ওছা কোটি টাকা সুদীপ্ত সেনের থেকে নিয়েছে। টাকা নিতে কাকে দেখা গেছে। শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) হোক, বা অন্য কেউই হোক, ফের যারা দলে আসবে, তাদের প্রায়শ্চিত্ত করে দলে নেওয়া হবে। তবে তাদের টিকিট দেওয়া উচিত নয় বলে আমি মনে করি।
দল ও প্রশাসন এক নয়
অভিষেক বলেন, দল ও প্রশাসন দুটি এক নয়। আমি প্রশাসনের কোনো অনুষ্ঠানে যাইনা। ডায়মন্ড হারবারে (Diamond Harbour) কোভিড টেস্টের জন্য সেলফ টেস্টিং কিট ব্যবহার করা হয়। তাতে একদিনে ৫৩ হাজার টেস্ট করা সম্ভব হয়। আমি ডায়মন্ড হারবারে ৭ দিনে যা করেছি, কলকাতায় তা করতে ১৫ দিন লেগেছে। আমি ব্যক্তিগত মত শেয়ার করছি। আমি রাজ্যের মন্ত্রী নই, প্রশাসনিক বিষয়ের সঙ্গে যুক্ত থাকতে চাই না। আমি পার্টির প্রতিনিধি, দলীয় কাজকর্মে আমার একমাত্র বিষয়। তৃণমূল সময়ের সঙ্গে বদলেছে। ভরসা রাখুন আমি দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে আছি। ৬০ বা ৬৫ বছরের ওপরে রাজনীতি করা উচিত নয়, কেন এমন বিল কেন্দ্রীয় সরকার আনতে পারছে না। বিদেশে এটি প্রচলন রয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া, এক ব্যক্তি এক পদ নীতি ৯৫ শতাংশ কার্যকর হয়ে গিয়েছে। বাকি ৫ শতাংশ কার্যকর হয়ে যাবে আমি আশ্বাস দিয়ে বলছি। আমি আগামী কুড়ি বছরে প্রশাসনে আসতে চাই না।
ত্রিপুরায় ৩ মাসে ২৫ শতাংশ ভোট বেড়েছে
অভিষেক বলেন, ত্রিপুরায় আমাদের তিন মাসের মধ্যে ২৫ শতাংশ ভোট বেড়েছে। বিজেপি ভয় পেয়েছে। আমরা আস্তে আস্তে সংগঠন তৈরি করছি।
সিবিআই ইডি
নির্বাচনের আগে আমার বাড়িতে সিবিআই ইডিয়েট করানো হয়েছে। আমার ব্যক্তিগত সচিব, আমার ছোটবেলার বন্ধুদের ও ছাড়েনি। কোন প্রমাণ থাকলে প্রকাশ্যে আনুন, আমি মৃত্যুবরণ করতে রাজি আছি।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here