সামসেরগঞ্জ, জঙ্গিপুর জোড়া কেন্দ্রে জয়ী তৃনমূল,
মুর্শিদাবাদের অধীর গড় সবুজ ঝড়ে ধূলিসাৎ

0
213

৩৬৫দিন ।মুর্শিদাবাদ।শেষ পর্যন্ত তৃণমূলের ঝড়ো ইনিংসে মুর্শিদাবাদে ধুলিস্যাৎ হলো অধীরের গড়! জোড়া বিধানসভা কেন্দ্র জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জ কেন্দ্রেই তৃণমূল প্রার্থীরা জয় লাভ করলো চূড়ান্ত পর্যায়ে।রবিবার জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জ জোড়া বিধানসভা কেন্দ্রে বিরোধী কংগ্রেস কে টপকে বড় মার্জিনে নিশ্চিত জয় পেল তৃণমূল প্রার্থী জাকির হোসেন ও আমিরুল ইসলাম।শেষ পর্যন্ত বিকেলে চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হতেই সামশেরগঞ্জে ২৪ রাউন্ড ও জঙ্গিপুর বিধানসভা কেন্দ্রের ২৬ রাউন্ড গণনা শেষে তৃণমূল প্রার্থীরা জয় লাভ করেন। সেক্ষেত্রে সামশেরগঞ্জে জয়ী তৃণমূল আমিরুল ইসলাম ২৬ হাজার ১১১ ভোটের ব্যবধানে জয়ী লাভ করেন। গণনাপর্ব শেষে তৃণমূলের ঝুলিতে ৯৬ হাজার ১২০ ভোট। পাশাপাশি জঙ্গিপুর বিধানসভা জঙ্গিপুর কেন্দ্রে ৯২ হাজার ৬১৩ ভোটে জয়ী হলেন তৃণমূল প্রার্থী জাকির হোসেন ৷

প্রসঙ্গত, ভোটের দিন মুর্শিদাবাদ জেলার সামশেরগঞ্জে ভোট পড়ে ৭৯.৯২ শতাংশ। জঙ্গিপুরে ছিল ৭৭.৬৩ শতাংশ।পাশাপাশি ভোট গণনা কেন্দ্রের বাইরে শাসক দলের সমর্থকদের মধ্যে মধ্যে চরম উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। যাতে কোনরকম বিশৃঙ্খলা না ছড়ায় সেই জন্য কড়া ব্যবস্থা নেয়া হয় পুলিশ প্রশাসনেের পক্ষ থেকে। পাশাপাশি দলীয় তরফেও কর্মী-সমর্থকদের শান্ত থাকার পরামর্শ দেওয়া হয় তৃণমূলের তরফে। এদিকে জয়ের পরি সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জাকির হোসেন বলেন,”কংগ্রেসকেও মানুষ কোনভাবেই ভোট দেবে না। হলে এই জয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয় আগামী দিনে জঙ্গিপুর বাসির পাশে সব সময় থাকবো”। অন্যদিকে সামশেরগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থীর সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করার পর জেতা আমিরুল ইসলাম বলেন,”কংগ্রেসকে অতীতে মানুষ সামশেরগঞ্জ থেকে জিতিয়েছে কিন্তু কংগ্রেস উন্নয়নের জন্য কিছু করেনি। তাই মানুষ উন্নয়নকে বেছে নিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে জিতেছে আমরা সেই মতই আগামী দিনে কাজ করব”। এদিকে মুর্শিদাবাদ জেলায় কংগ্রেসের এই ধরাশায়ী বিপর্যয়ের পর রীতিমতো এলাকায় কংগ্রেস কার্যালয় হতাশার ছায়া লক্ষ্য করা যায়।

Advertisement