টুর দে ফ্রান্স বন্ধ করার আবেদন ফরাসিদের

0

Last Updated on August 29, 2020 2:47 PM by Khabar365Din

পৃথিবীর বিখ্যাত সাইকেল রেস প্রতিযোগিতা টুর দে ফ্রান্স বন্ধ হোক। প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন ফরাসিরা। গত ২৭ জুন টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার কথা থাকলেও, বর্তমান পরিস্থিতির জন্য তা দু মাস পিছিয়ে দেওয়া হয়। শনিবার থেকে শুরু হওয়ার কথা তিন সপ্তাহ ধরে চলা এই প্রতিযোগিতার। বিভিন্ন দেশের প্রতিযোগিরা ইতিমধ্যেই ফ্রান্সে পৌঁছে গিয়েছেন। গত দু’দিনের পরীক্ষায় প্রতিযোগী এবং স্টাফ মিলে মোট ১০ জন করণা পজিটিভ হয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই যে গেমস ভিলেজে বাকি সাইক্লিস্টরা রয়েছেন, তারাও বিপদের বাইরে নন। অনেকেই প্রতিযোগিতায় নামতে না চাইলেও, শোনা যাচ্ছে ফরাসি সরকার নাকি জোর করছেন তাদের প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে। ফ্রান্সের ক্রীড়া মন্ত্রী জানিয়েছেন টুর দে ফ্রান্স দেশের গর্ব। কোনমতেই তা ক্যানসেল করা যাবে না। এই প্রতিযোগিতা নাকি প্রমাণ করবে রোগের বিরুদ্ধে মানুষ লড়াই করে জিততে জানে। তবে ফরাসি মন্ত্রীর এই কথায় চিড়ে ভেজার নয়। প্রত্যেক সাইক্লিস্টের জীবন বীমা থাকলেও তাদের বক্তব্য জেনেশুনে কেন তারা বিপদকে ডেকে আনতে যাবেন? তা ছাড়া অলিম্পিকের মত প্রতিযোগিতা যদি পিছিয়ে পরের বছর করা যেতে পারে, তাহলে টুর দে ফ্রান্স এর ক্ষেত্রে তেমনটা সম্ভব নয় কেন? এই প্রতিযোগিতায় দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে সাইকেল চালিয়ে যেতে হয় প্রতিযোগীদের। প্রায় ১২০০ কিলোমিটারের দীর্ঘ রাস্তা। আল্পস, পিরিনিজ পর্বতমালার ধার দিয়ে মনোরম রাস্তা। রাস্তার দুই ধারে দাঁড়িয়ে থাকা মানুষ হাত নেড়ে প্রতিযোগীদের উৎসাহিত করেন। তাই এমনটা হলে আরো প্রবলভাবে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ফরাসি প্রধান ইমানুয়েল ম্যাক্রন জানিয়েছেন দেশে করোনার দাপট বাড়লেও, মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে অনেক। তাই টুর দে ফ্রান্স যে বিরাট বিপদ ডেকে আনবে তা তিনি মনে করেন না। অর্থাৎ তার কথাতেই পরিস্কার ফরাসি সরকার এই প্রতিযোগিতা বন্ধ করার কথা ভাবছে না। তবে অ্যাথলিটরা আক্রান্ত হলে ফরাসি সরকারকে কিন্তু প্রশ্নের মুখে পড়তে হবে।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here