পরীমনি কাণ্ডে গোয়েন্দা কর্তা সহ গ্রেফতার আরো ৫, ক্লায়েন্ট লিস্টে টালিগঞ্জের প্রভাবশালীদের খুঁজতে কি এনএসআই?

0

Last Updated on August 8, 2021 1:17 AM by Khabar365Din

খবর ৩৬৫ দিন ও বাংলাদেশের সংবাদসংস্থা যৌথভাবে

- Advertisement -

৩৬৫দিন। মক্ষীরানি পরীমণিকাণ্ডে বাংলাদেশের সিআইডির জালে আরও ৫। পরীমণির বনানীর বাসায় যাতায়াত ছিল গোয়েন্দা কর্তা মহঃ গোলাম সাকলায়েনের। এমনকি দুজনকে একসঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে গাড়িতে ঘুরতে দেখা গিয়েছে। এই অভিযোগ ওঠার পরেই ওই গোয়েন্দা কর্তাকে বদলি করে দেওয়া হয় শনিবার৷ প্রয়োজনে তাকে গ্রেফতার করা হবে। এদিকে বাংলাদেশের সিআইডি গ্রেফতার করেছে প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজ, ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা, আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী হেলেনা জাহাঙ্গীর ও মারিয়ম আক্তার মৌকে। প্রত্যেকেই মাদক পাচার এবং মধুচক্রের অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিকে আন্তর্জাতিক মাদক পাচার ও মধুচক্রের দায়ে গ্রেফতার হওয়া অভিনেত্রী পরীমণিকে জেরা করে তার সঙ্গে পাকিস্তান ও দুবাইয়ের লিংক পাওয়ার পরই বার গোটা ঘটনার তদন্তে নামতে চলেছে বাংলাদেশের জাতীয় নিরাপা গোয়েন্দা সংস্থা এন এস আই। সূত্রের খবর, প্রথম থেকেই বিষয়টির উপরে নজর রাখছিল বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। কিন্তু ঘটনার সঙ্গে বিদেশি যোগ মেলায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নির্দেশেই তদন্তভার নিজেদের হাতে নিতে চলেছে এন এস আই এর গোয়েন্দারা। র্যাবের জেরায় পরীমণি জানিয়েছে, ঢাকা ঘনিষ্ঠ টালিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রির একাধিক প্রভাবশালীর সঙ্গে তার গভীর যোগাযোগ রয়েছে।

বাংলাদেশের গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পরীমণির ক্লায়েন্ট লিস্ট অনুযায়ী আপাতত এর মধ্যে রয়েছেন টালিগঞ্জের ২ পরিচালক, ৩ প্রযোজক সহ ২ অভিনেতা। আরও নাম উঠে আসছে। বাংলাদেশের সুপারহিট নায়িকা পরীমণি পশ্চিমবঙ্গে এসে গত ৪ বছর ধরে সিনেমা করছেন। বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের যৌথ প্রযোজনায় দুটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে বাংলায়। বাংলাদেশের জ্যাজ মাল্টিমিডিয়া ও টালিগঞ্জের এস কে মুভিজের যৌথ প্রযোজনায় ২০১৬ সালের রক্ত সিনেমায় নায়িকার ভূমিকায় দেখা গেছিল পরীমণিকে। ২০১৮ সালে এস কে মুভিজ আর বেঙ্গল ক্রিয়েশনের প্রযোজনায় স্বপ্নজাল নামে সিনেমায় ছিলেন বাংলাদেশের এই হট নায়িকা। এই ছবির পরিবেশনের ভূমিকায় কলকাতার এক নামকরা সংস্থা ছিল। শনিবার বাংলাদেশের সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জয়েন্ট কমিশনার অফ ডিবি নর্থ হারুন-অর-রশিদ বলেন, পরীমনিকে জেরা করে একের পর এক নাম উঠে আসছে। বাংলাদেশের প্রভাবশালী অনেকের নামই উঠে আসছে। এছাড়াও ভারত, পাকিস্তান ও দুবাইয়ের অনেক প্রভাবশালীর নামও পাওয়া যাচ্ছে। এদিকে, আন্তর্জাতিক মাদক পাচার ও মধুচক্র কীভাবে চালাতো পরীমণি তার জবাব খুঁজছে র্যাবের গোয়েন্দারা। গোয়েন্দাদের সন্দেহ, পরীমণির লিঙ্কম্যান হিসেবে কাজ করতো বাংলাদেশের টেলিভিশন শো এর পরিচালক ও পরিমনির তথাকথিত মা চয়নিকা চৌধুরী। শনিবার সন্ধ্যায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তরফে বলা হয়েছে, পরীমনি চয়নিকার সঙ্গেই একই ফ্ল্যাটে থাকতেন। এদিকে, জেরায় উঠে এসেছে তার কস্টিউম ডিজাইনার জুনেদ করিম জিমির নাম। তাকেও এদিন বনানী এলাকায় থেকে পাকড়াও করে নিয়ে এসে জেরা করা হয়।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here