Akshay Kumar Bell Bottom: ‘বেল বটম’ নিষিদ্ধ ৩ দেশে সৌদি আরব, কাতার, কুয়েত

0
1638

৩৬৫দিন। তথ্য বিকৃত করার অভিযোগে অক্ষয় কুমার অভিনীত বেল বটম ছ সৌদি আরব, কাতার এবং কুয়েতে নিষিদ্ধ ঘোষিত হল। এই তিন দেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বেল বটম-এর প্রদর্শনে। ১৯৮৪ সালে শ্রীনগর বিমানবন্দর থেকে ইন্ডিয়ান এয়ারলায়েন্সের এয়ার বাস এ ৩০০ ফ্লাইট নম্বর ৪০৫ বিমান হাইজ্যাক হয়। ২৫৪ জন যাত্রী সমেত এই বিমান অপহরনের পিছনে ছিল বিচ্ছিন্নতাবাদী খলিস্থানপন্থী শীর্ষ নেতা জার্নাল সিং ভিন্দ্রাওয়াল। প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর নির্দেশে পাঞ্জাবের স্বর্ণমন্দিরে অপারেশন ব্লু স্টার বন্দী জঙ্গিদের ছাড়াতেই এই অপহরণ হয়েছিল। বিমানটিকে প্রথমে পাকিস্থানের লাহোর এবং সেখান থেকে দুবাই নিয়ে যাওয়া হয়। ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা র এর দুই কর্তা জঙ্গিদের সঙ্গে নেগোসিয়েশন করতে ব্যর্থ হলে, ইন্দিরার পরামর্শে আরব আমিরসাহির পক্ষ থেকে আলোচনা চালানো হয়। এবং সাফল্য আসে। কিন্ত বেল বটম ছবিতে এই তথ্য বিকৃত করে আমিরসাহীকে নিষ্ক্রিয় ও র কর্তাদের কৃতিত্ব দেখানো হয়েছে। তাতেই চটেছে সৌদি, কাতার সহ কুয়েত। সারা বিশ্বে ৩৪৬৭ টি প্রেক্ষাগৃহে ১৯ তারিখ মুক্তি পেয়েছে ছবিটি। মিডল ইস্টের ১২০০ হলে এই ঘটনায় ধাক্কা খেল অক্ষয়ের ছবিটি। আশির দশকে বিমান হাইজ্যাকের ঘটনা নিয়ে বেল বটম ছবির গল্প তৈরি হয়েছে। প্রকৃত ঘটনা হল, আরব আমিরশাহীর প্রতিরক্ষা মন্ত্রী শেখ মুহম্মদ বিন রাশিদ আল মাক্তুম নিজ উদ্যোগে পরিস্থিতি সামাল দিয়েছিলেন এবং আরব আমিরশাহির কর্তৃপক্ষ বিমান হাইজ্যাককারীদের ধরেছিল, বন্দী করেছিল এবং বিমান যাত্রীদের মুক্ত করেছিল। যদিও বেল বটম ছবির গল্পে দেখানো হয় অক্ষয়ের চরিত্রটি এই অভিযানের সকল দায়িত্ব পালন করেন, অর্থাৎ ভারতীয় কর্মকর্তাদের হিরো হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে। এমনকি দুবাইয়ের প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে একেবারে আড়ালে অকর্মণ্য হিসাবে রাখা হয়েছে।গোটা ছবি জুড়ে ভারতীয় র এর এজেন্ট অক্ষয়ের নানা কার্যকলাপ ও একশন। যেখানে তথ্য বিকৃত হয়েছে বলে অভিযোগ আমিরশাহীর ফিল্ম সেন্সর বোর্ডের। ছবির গল্পে অতিরঞ্জন ও এ ধরনের ভুল তথ্য তুলে ধরার কারণ দেখিয়ে ওই তিন দেশ সিনেমাটি তাদের দেশে নিষিদ্ধ করেছে। কিন্তু এ ব্যাপারে ছবির পরিচালক থেকে প্রযোজনা সংস্থা কারোরই কোনো রকম প্রতিক্রিয়া মেলেনি। বেল বটম পরিচালনা করেছেন রণজিৎ তিওয়ারি। ছবিটিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অভিনয় করেছেন বাণী কাপুর, হুমা কুরেশি ও লারা দত্ত। তিন দিনে এই ছবিটি বক্স অফিসে ব্যবসা করেছে মোট ৬ কোটি টাকার।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here