Miss Universe :
২১ বছর পরে মিস ইউনিভার্স ভারতের, চন্ডীগড়ের হরনাজ

0
226

৩৬৫দিন। চাক দে ফট্টে ইন্ডিয়া। ২১ বছর পর ফের ভারতের মাথায় উঠল বিশ্ব দরবারে সেরা সেরা খেতাব। মিস ইউনিভার্স হলেন ভারতের হরনাজ সান্ধু। ১৯৯৮ সালে সুস্মিতা সেন, ২০০০ সালে লারা দত্তের ঐতিহাসিক সাফল্যের পর তৃতীয় ভারতীয় সুন্দরী হিসাবে মিস ইউনিভার্সের মুকুট জিতল হারনাজ। রবিবার ইসরাইলে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে হারনাজের মাথায় এদিন মুকুট পরিয়ে দেন ২০২০ সালের মিস ইউনিভার্স মেক্সিকোর আন্দ্রেয়া মেজা । ২১ বছর বয়সী হরনাজের জন্ম পাঞ্জাবী পরিবারে। চন্ডীগড়ের মেয়ে পেশায় মডেল, ফিটনেস লাভার ও যোগ ব্যায়ামে পারদর্শী। ইতিমধ্যেই দুটি পাঞ্জাবী ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি, যা মুক্তি পেতে চলেছে ২০২২ সালে। এই প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে প্যারাগুয়ে এবং সাউথ আফ্রিকা। এই সাফল্য এনে দেওয়ার পর মাতৃভাষাতেই প্রথম প্রতিক্রিয়া জানান হারনাজ, তিনি বলেন- চক দে ফট্টে ইন্ডিয়া। এই ভিডিও প্রকাশিত হয় সোশ্যাল মিডিয়া সেই ফাইনাল রাউন্ডে হরনাজকে বিচারকরা জিজ্ঞেস করেন, এই প্রজন্মের মেয়েরা জীবনে যে ধরনের অসুবিধার বা চাপের সম্মুখীন হন সে বিষয়ে তাঁদের কী পরামর্শ দেবেন তিনি।

উত্তরে হরনাজ বলেন, এখন মেয়েরা যে সমস্যার সম্মুখীন সবচেয়ে বেশি হন তা হল নিজের প্রতি বিশ্বাস বজায় রাখা। নিজেরে আলাদা গড়ে তোলাই তোমায় সুন্দর করে তুলবে। নিজেকে অন্যদের সঙ্গে তুলনা করা বন্ধ করে সারা পৃথিবীতে ঘটা অন্যান্য নানা বিষয় নিয়ে কথা বল। নিজের জন্য কথা বল কারণ তোমার জীবনে তুমিই লিডার। আমি নিজেকে বিশ্বাস করি তাই আমি আজ এখানে। তারপর থেকেই গোটা বিশ্ব জুড়ে ভারতের জয়জয়কার। প্রসঙ্গত, চণ্ডীগড়ের মেয়ে হরনাজ সান্ধু টিনেজ থেকেই মডেলিংয়ে নিজের কেরিয়ার শুরু করেছিলেন । ২০১৭ সালে মিস চন্ডীগড় হয়েছিলেন হরনাজ সান্ধু। এরপর ২০১৮ সালে ফের এমার্জিং স্টার শিরোপা পেয়েছিলেন তিনি। ২০১৯ সালে মিস ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতায় সেরা বারো প্রতিযোগীর মধ্যে ছিলেন হরনাজ, কিন্তু সে বছর সেরার শিরোপা পেতে ব্যর্থ হন তিনি। এরপর ২০২১ সালে ফের মিস ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতায় অংশ নেন তিনি। এই বছর সেপ্টেম্বরে মিস ডিভা ইউনিভার্স ইন্ডিয়া খেতাব পান হরনাজ। এরপর মিস ইউনিভার্সের মঞ্চে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here