ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নষ্ট করার অধিকার কে দিয়েছে?
মুখ্যমন্ত্রীর তীব্র আক্রমণ কেন্দ্রকে

0
967

৩৬৫দিন। কেন্দ্রের হঠকারী সিদ্ধান্তের ফলে রাজ্যে জয়েন্ট- পরীক্ষায় ৪,৬৫২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে মাত্র পরীক্ষায় বসতে পেরেছে ১,১৬৭জন। অর্থাৎ ৭৫ শতাংশ পরীক্ষার্থীই অসমর্থ হয়েছে পরীক্ষায় বসতে। বুধবার নবান্নে এই তথ্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে জানানোর পরেই কেন্দ্রের প্রতি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রশ্ন তোলেন,”এত অহংকার কেনো? এত জিদ কেনো? এত ইগো কেন?ছাত্র-ছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নষ্ট করার অধিকার কে দিয়েছে? যারা পরীক্ষায় বসতে পারলো না তারা তো বঞ্চিত হল। অন্যান্য রাজ্যেও ৫০শতাংশ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় বসতে পারেনি।” যদিও কেন্দ্রীয় নির্দেশিকা অনুযায়ী রাজ্য সরকার পরীক্ষার্থীদের জন্য যানবাহনের সব ধরনের ব্যবস্থা রেখেছিল। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, ছাত্র-ছাত্রীরা তো পরীক্ষায় বসবে না বলেনি, তারা কয়েকটা দিন শুধু পেছাতে বলেছিল। কয়েকটা দিন বাড়ানো হলে কি এমন মহাভারত অশুদ্ধ হতো? যে সমস্ত পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষায় বসতে পারিনি তাদের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী।
সেপ্টেম্বরে ৩ দিন লকডাউন
কেন্দ্রে নির্দেশিকা যাই হোক আপাতত সেপ্টেম্বরে ৭,১১,১২ তিন দিন লকডাউন হচ্ছেই। মুখ্যমন্ত্রী বলেন,”কেন্দ্রের তরফে আগের গাইডলাইনে বলা হয়েছিল, প্রয়োজন মতো রাজ্য সরকার লকডাউনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। সেই অনুযায়ী আগস্টের শেষেই সেপ্টেম্বরে পূর্ণ লকডাউনের দিন ঘোষণা করা হয়েছে। আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত স্বরাষ্ট্র দফতরকে জানিয়ে দিয়েছি।”

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here