পুজোর আগেই পদ্মার ইলিশ এপার বাংলায়, ছাড়পত্র বাংলাদেশের

0
1150

৩৬৫ দিন: সামনেই দুর্গাপুজো। করোনার জেরে লকডাউন এবং আমফানে দীঘা এবং সুন্দরবনের প্রাকৃতিক ভারসাম্য অনেকটাই বিপন্ন হওয়ার এবারের বাঙালির পাতে সেইভাবে ইলিশ সহজলভ্য হয়নি। এই পরিস্থিতিতে শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশ সরকার দূর্গা পূজার কথা ভেবে এবার বাংলায় ইলিশ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো। গত বছরই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের শেখ হাসিনাকে অনুরোধ করেছিলেন বাংলাদেশের ইলিশ রপ্তানির নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার জন্য। তারপরেই কত বছর প্রায় 500 টন ইলিশ কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের এবং উত্তরবঙ্গের সর্বত্র।
বাংলাদেশের সব থেকে বড় ইলিশ রপ্তানি সংস্থা রিপা এন্টারপ্রাইজের আবেদনের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় দুর্গা পুজোর কথা বিবেচনা করে আগামী 10 অক্টোবর পর্যন্ত বাংলা সহ ভারতে মোট 175 মেট্রিক টন পদ্মার ইলিশ রফতানির অনুমতি প্রদান করেছে।
প্রসঙ্গত, ২০১২ সাল থেকে ইলিশ পাঠানোর উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল বাংলাদেশ সরকার। তারপর দীর্ঘ ৬ বছর বন্ধ ছিল আদানপ্রদান।
হাওড়া হোলসেল ফিশ মার্কেট অ্যাসোসিয়েশন এবং ফিশ ইম্পোর্টারস অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারী সৈয়দ আনয়ার মাকসুদ জানান, বাংলাদেশ সরকারের সম্মতি মিলেছে। গত বছরও বাংলাদেশ থেকে রাজ্যে ঢুকেছিল ৫০০ টন ইলিশ। তবে এবারে গত বছরের থেকে ২ গুণ বেশি পরিমাণে ইলিশ ঢুকতে চলেছে। তবে পদ্মার ইলিশ এপার বাংলার বাজারে কত দামে পাওয়া যাবে সেই বিষয়ে এখনো পর্যন্ত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি। বাংলাদেশের রিপা এন্টারপ্রাইজের সূত্রে জানা গিয়েছে, রপ্তানির জন্য যে 175 মেট্রিকটন পদ্মার ইলিশ ভারতে পাঠানো হবে, তার প্রতিটি কমপক্ষে 1 কেজি ওজনের হবে।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here