মোদি-মমতাদের উপর চিনের সাইবার নজরদারি তদন্তে রাষ্ট্রদূতের জবাবদিহি তলব ভারতের

2

Last Updated on September 18, 2020 9:20 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন: নয়াদিল্লি। প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি থেকে শুরু করে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী অথবা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো ভারতের অন্তত ১০ হাজার রাজনৈতিক এবং শিল্পজগতের প্রথমসারির ব্যক্তিত্বদের উপরে নজরদারি চালাচ্ছে চিনা ফেলুদা। চলতি সপ্তাহেই সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সংবাদ প্রকাশের পরে লোকসভা এবং রাজ্যসভার সমস্ত বিরোধী রাজনৈতিক দলের সাংসদদের দাবি মেনে অবশেষে বাধ্য হয়েই বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্করের নেতৃত্বে গঠিত হলো বিশ্বের সংসদীয় তদন্ত কমিটি। ইতিমধ্যেই ভারতে চিনের রাষ্ট্রদূত সান উইডং-এর কাছে লিখিতভাবে চিনের শি জিনপিং প্রশাসনের ঘনিষ্ঠ এবং গোটা পৃথিবীতে হাইব্রিড ওয়ারফেয়ারে অত্যন্ত দক্ষ সাইবার টেকনোলজি সংস্থা শিনহুয়া ডাটা ইনফরমেশন টেকনোলজি কোম্পানির কাছ থেকে গোটা ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট দাবি করা হয়েছে। বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর গোটা বিষয়টি নিয়ে এখনও পর্যন্ত সরকারের তরফে যা যা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে, সেই বিষয়ে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ কে সি ভেনুগোপালকে। তবে এই বিষয়টি যে তারা গুরুত্বের সঙ্গে দেখছেন এটা জানিয়ে জয়শংকর বলেন যে বিশেষজ্ঞ কমিটি ৩০ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দেবে তদন্ত করার পর।
বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন যে চিন বলেছে শেনজেন শিনহুয়া একটা বেসরকারি সংস্থা। তাদের সঙ্গে বেজিংয়ের কোনও সম্পর্ক নেই। তবে এই সংক্রান্ত তথ্য যাচাই করার জন্য কেন্দ্র ন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি কোর্ডিনেটরের আওতায় একটি কমিটি গঠন করেছে যেটি ৩০ দিনের মধ্যে রিপোর্ট দেবে।
যদিও ভারতে চীনের রাষ্ট্রদূতের কাছে লিখিতভাবে জবাবদিহি চাওয়ার পাশাপাশি বেজিংয়ে ভারতীয় হাইকমিশনের তরফে শি জিনপিং সরকারের কাছে গোটা বিষয়টি নিয়ে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে জবাব চাওয়া হলে, শেনজেন শিনহুয়া সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, তাদের সংস্থা নাকি ভারতীয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহের জন্য আলাদা করে কিছুই করেনি। শুধুমাত্র বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট এবং পাবলিক ডোমেইনে এই নেতাদের যে সমস্ত তথ্য পাওয়া গেছে সেগুলো থেকে সংগৃহীত করে রেখেছে তারা।

- Advertisement -
Advertisement

2 COMMENTS

  1. মাননীয় সম্পাদক,
    প্রিন্ট ভার্সানে যেমন পাঠকদের মতামত প্রকাশ করতে পোস্ট অফিস বলে একটা বিভাগ ছিল সেটা অনলাইন ভার্সানেও চালু করতে অনুরোধ করছি। এখানে পাঠকের মতামত নসম সহ ছাপানো হলে অনলাইন ভার্সান আরো বেশী আকর্ষণীয় ও জনপ্রিয় হবে বলে মনে করি।
    ধন্যবাদ।

  2. কমেন্ট পোস্ট করার পর এডিট করার অপশন রাখতে অনুরোধ করছি। অনেকসময় অটো কারেকশন সিস্টেমের জন্য লিখলাম এক বানান আর হয়ে গেল আরেক বানান, একটু নজর না করলেই সেটা সাবমিট হয়ে গেলে ভুলটা কমেন্টে রয়ে যাচ্ছে এবং এডিট করার সুযোগ না থাকায় তা ঠিক করে দেওয়া যাচ্ছেনা। অন্য যে কোনো সাইটে মন্তব্য এডিট করার কিন্তু সুযোগ থাকে। ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here