বাংলাদেশে আদানির বড় বিনিয়োগ – চট্টগ্রাম বন্দর, SEZ-এ ১০০০ কোটি বিনিয়োগ

0

Last Updated on September 7, 2022 5:16 PM by Khabar365Din

- Advertisement -

সৌগত মন্ডল। খবর ৩৬৫ দিন।

সামনেই বাংলাদেশের সাধারণ নির্বাচন। নির্বাচনের ঠিক আগে ভারত সফরে এসে রাজনৈতিক ভাবে ভারতের পাশে থাকার আশ্বাসের পাশাপাশি ভারতীয় শিল্পপতিদের কাছ থেকে বাংলাদেশে বিপুল পরিমাণ বিনিয়োগ নিশ্চিত করা অবশ্যই প্রধান লক্ষ্য ছিল শেখ হাসিনার। সেই কারণে ভারতছা উপরে এসে প্রথমেই তিনি একান্ত বৈঠক করেন আদানি গোষ্ঠীর কর্ণধার তথা কয়েকদিন আগেই বিশ্বের তৃতীয় ধনী শিল্পপতির তকমা পাওয়া গৌতম আদানির সঙ্গে।

হাসিনার কাছে কেন গুরুত্বপূর্ণ আদানি

চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ভারতের একটি এসইজেড স্থাপনের জন্য বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আদানি পোর্টসের চুক্তিও সম্পূর্ণ। আদানির গোড্ডা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকেও পুরো উৎপাদনটাই কেনার অঙ্গীকার করে রেখেছে বাংলাদেশ। যে জন্য তাদের খুব চড়া হারে ক্যাপাসিটি চার্জও দিতে হচ্ছে। তবে সেই বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কবে শেষ হবে, তা এখনো অনিশ্চিত।


স্বাধীনতার আগে থেকেই বাংলাদেশে চট্টগ্রাম এবং মোংলা এই দুটি সমুদ্র বন্দর রয়েছে বাংলাদেশে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার এ দুই বন্দরের উন্নয়নে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। পাশাপাশি আরো তিনটি সমুদ্রবন্দর নির্মাণ কাজ এগিয়ে নিচ্ছে। মূলত বাংলাদেশের অর্থনীতি এবং আমদানির রপ্তানির বাণিজ্য আরো বাড়ানোর জন্যে এই বন্দর গুলি বড় ভূমিকা পালন করবে বলে দেশবাসীকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন শেখ হাসিনা। যার মধ্যে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ চট্টগ্রাম বন্দর সংলগ্ন মীরসরাই স্পেশাল ইকোনমিক জোন। প্রায় ২.৫ বিলিয়ন ডলার ব্যয় করে উপমহাদেশের সব থেকে বড় ইকোনমিক জোন মিরসরাই সংলগ্ন একটি সমুদ্রবন্দর নির্মাণের কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। এই ইকোনমিক জোনের নিজস্ব একটি ডেডিকেটেড সমুদ্রবন্দর থাকবে।


মিরসরাইয়ে ভারতীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল বা ইন্ডিয়ান ইকোনমিক জোন তৈরির জন্য ১০০০ একর জমি বরাদ্দ করেছে বাংলাদেশ সরকার। যার মধ্যে গ্যাস উৎপাদন থেকে শুরু করে তেল সংশোধনাগার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র এবং বন্দরের যাবতীয় কার্যকলাপ সম্পন্ন করার দায়িত্ব পেয়েছে আদানি গোষ্ঠী।


আজ সকালেও ভারত সফরের তৃতীয় দিনে বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসায়িক ফোরামের বৈঠকে অংশ নিয়ে শেখ হাসিনা ভারতীয় শিল্পপতিদের বাংলাদেশের আরো বেশি করে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, বর্তমানে শিল্প, কর্মসংস্থান, উৎপাদন ও রপ্তানি বৃদ্ধি ও বহুমুখীকরণের মাধ্যমে বিনিয়োগ ও দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়নকে উৎসাহিত করার লক্ষ্যে সারা দেশে ১০০ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং ২৮ হাই-টেক পার্ক স্থাপন করা হচ্ছে। ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য, মোংলা এবং মীরসরাইয়ে দুটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে। আমি আজ এখানে উপস্থিত ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানাচ্ছি।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here