ইয়েচুরি ও পলিটব্যুরোকে থোড়াই কেয়ার, ভুল স্বীকার অগ্রাহ্য করে ভাইজানের সঙ্গে আবার জোট

0
1316

শূন্য থেকে মহাশূন্যের দিকে – নওশাদের সঙ্গে মালদায় মিছিল সেলিম ভাই, বিকাশ ভাইয়ের

- Advertisement -

৩৬৫ দিন। ক্ষমতার মোহ বড় ভয়ানক জিনিস। দীর্ঘ ৩৪ বছর ধরে বাংলার মসনদে বসে থাকার পরে মাত্র এক দশকের মধ্যেই ভোটের রাজনীতিতে বাংলা থেকে কার্যত নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছে সিপিএম। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে সাম্প্রদায়িক এবং সম্পূর্ণ জাতপাতের ভিত্তিতে তৈরি হওয়া ভাইজানের দল আই এস এফ এর সঙ্গে হাত মিলিয়ে সংযুক্ত মোর্চা তৈরি করে প্রথমবারের জন্য শূন্যে পরিণত হয়েছে বাংলার বাম শক্তি।


বাংলায় শূন্যে পরিণত হওয়ার পেছনে কী কারণ রয়েছে তা খোঁজার জন্য দিন কয়েক আগেই কলকাতায় এসেছিলেন সিপিএমের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। দলের রাজ্য কমিটির দু’ দিনের বৈঠকে যোগ দিয়ে রাজ্য নেতাদের উপরে পরাজয়ের যাবতীয় কারণ চাপিয়ে সাম্প্রদায়িক ভাইজানের দলের সঙ্গে জোট বাঁধো ভুল হয়েছে বলেও কার্যত স্বীকার করে নেন ইয়েচুরি। সেই সঙ্গে স্পষ্ট ভাষায় প্রকাশ্যে জানিয়ে দিয়েছিলেন কংগ্রেস এবং আই এস এফ এর সঙ্গে জোট বাধা হয়েছিল শুধুমাত্র একটি নির্বাচনের জন্য। ভোট সমঝোতায় তৈরি সংযুক্ত মোর্চা ভোট শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আয়ুষ্কাল শেষ করেছে।

কিন্তু ক্ষমতার কাছাকাছি থাকার যে মোহ, তা থেকে বেরোতে পারছেন না বাংলার সিপিএম নেতারা। সাম্প্রদায়িক হোক অথবা দলের ভরাডুবি পেছনে মূল কারণ – তার সত্বেও ভাইজানের দল আই এস এফ এর হাতে একজন নির্বাচিত বিধায়ক রয়েছেন। তার সঙ্গে ঘুরে বেরিয়ে যদি আসন্ন উপনির্বাচন অথবা পরবর্তী কোনো নির্বাচনে দু-একটা আসন জেতা যায়! সেই আশাতে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এবং দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক নিষেধাজ্ঞা অগ্রাহ্য করে আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকীর সঙ্গে মালদার মানিকচক সফরে চলে গেলেন মোহাম্মদ সেলিম এবং বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here