মক্ষীরানীর নয়া কীর্তি, জামিন পেয়ে বাঁদরামি – তালুতে লেখা “বিচ” লক্ষ্য দেশের প্রধানমন্ত্রী?

0
170

জামিনে জেল থেকে বেরিয়েই ফের বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে বাংলাদেশের মক্ষীরানি পরীমনি। কাশিমপুর জেল থেকে বেরিয়ে গাড়িতে করে ঢাকায় যান তিনি। গাড়ির সান রুফ থেকে হাত বের করে দেখাতে থাকেন। হাতে মেহেন্দি করে লেখা ডোন্ট লভ মি বিচ, এর পাশে মধ্যমার ছবি। অনেকে মনে করছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করেই এই বার্তা পরীমনির।
তার পরনে ছিল সাদা টি-শার্ট এবং মাথায় সাদা পাগড়ির মতো করে জড়ানো একটি কাপড়।
হাতে মেহেদীর রঙে আঁকা ওই লেখার মাধ্যমে তিনি কি বোঝাতে চেয়েছেন, তা জানতে চাওয়া হলে পরীমনি বলেন, “ডেফিনেটলি এটা তো একটা বার্তাই ছিল।” তিনি বলেন, “এত কথা তো বলতে পারছিলাম না ওখানে বসে, মনে হলো এভাবে পৌঁছাইয়া দেই সবাইকে। এখন এটা দেখে যে মনে করবে, যার মনে হবে, আমাকে বলছে মনে হয়, ওর জন্যেই বলছি আমি।”

- Advertisement -


এই ‘বিচ’ কারা জানতে চাইলে পরীমনি বলছেন, ”যারা বিচ, তাদের উদ্দেশ্য করে লেখা। যে যে বিচ, যারা মনে করে আল্লাহ, আমাকে এটা আমাকে লিখছে কিনা, সে-ই বিচ। বিচের সংখ্যা তো অনেক বড়, অনেক লম্বা।

“দেখেন না যখন আমি অ্যারেস্ট হইলাম তখন এক রকম অ্যাকটিভিটিজ। আবার যখন জামিন পেলাম, তখন অন্যরকম অ্যাকটিভিটিজ। ওরা হইল বিচ।”
পরীমনি আরও বলেন, ”ওদের ভালোবাসার দরকার নেই। মুখে এক, মনে এক – ওদের ভালোবাসার দরকার নেই। যারা আমাকে ভালোবাসে, তারা আমার পাশে থাকলেই হবে।” তিনি জানান, গ্রেপ্তার হওয়া ও কারাগারে যেভাবে তাকে সময় কাটাতে হয়েছে, কয়েকদিন পর সবাইকে তার বিস্তারিত জানাবেন।
”এটা নিয়ে ডেফিনিটলি কথা বলবো। আমাকে তো কথা বলতেই হবে। এটা আমার দায়বদ্ধতা। কিন্তু আমার কিছু সময় লাগবে।”

তিনি আরও বলেন, ”অনেক লম্বা কথা আছে, আমি বলতে চাই। সত্যি সত্যি বলতে চাই, ডেফিনিটলি আমি বলবো।” বনানীর যে বাড়িতে তিনি থাকতেন সেই বাড়ি ছেড়ে দেওয়ার জন্য নোটিশ দিয়েছেন বাড়িওয়ালা। এই নিয়েও ক্ষোভ উগরে দেন তিনি।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here