ক্যাগ রিপোর্টে কেন্দ্রের ক্ষতিপূরণ দুর্নীতি ফাঁস, রাজ্যের প্রাপ্য জিএসটি অন্য খাতে খরচ কেন্দ্রের

0

Last Updated on September 25, 2020 10:58 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন: বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকার সংবিধান মেনে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো কে সম্মান না করে রাজ্যগুলিতে তাদের প্রাপ্য জিএসটি ক্ষতিপূরণের টাকা দিচ্ছে না বলে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ করে আসছে অ-বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলি। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী থেকে শুরু করে মহারাষ্ট্র, কেরালা, তামিলনাড়ু, পাঞ্জাবের মত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বারে বারে নীতি আয়োগ এর বৈঠকে এবং জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠকে এই নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানানো সত্ত্বেও অ্যাক্ট অফ গড অথবা ভগবানের দোহাই দিয়ে দায় এড়িয়ে গেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু সাম্প্রতিকতম রিপোর্টে স্পষ্ট ভাবে জানানো হলো কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকার রাজ্যগুলির ন্যায্য প্রাপ্য টাকা না দিয়ে অন্যত্র খরচ করেছে। যা একেবারেই যুক্তরাষ্ট্রীয় আইন সংগত নয়। কেকের এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পরে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র সরাসরি প্রধানমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ করে বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কি এবারে বেআইনিভাবে রাজ্যগুলির প্রাপ্য টাকা আটকে রেখে জিএসটি খাতের টাকা অন্যত্র খরচ করার বিষয় জবাবদিহি করবেন দেশের মানুষের কাছে?
ক্যাগের রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, জিএসটির ৪৭,২৭২ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ ঘিরে কেন্দ্র নিজেই সিএফআইয়ের আইন ভেঙেছে। জিএসটি কম্পেনশেন সেস ফান্ডে টাকা না পাঠিয়ে, সিএফআইতে এই টাকা ফেরত দিয়েছে সরকার। ২০১৭-২০১৮ এবং ২০১৮-১৯ সালের ঘটনা- যেখানে কেন্দ্র, ওই আর্থিক মূল্য অন্য খাতে ব্যবহার করেছে বলে ক্যাগের রিপোর্টে ধরা পড়ছে। এইভাবেই ওই অর্থবর্ষে আর্থিক ঘাটতি কম দেখানো হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। অথচ গত সপ্তাহেই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী সংসদে জানিয়েছিলেন যে, দেশের সিএফআই বা কনসলিডেটেড ফান্ড অফ ইন্ডিয়া ছাড়া জিএসটির ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কোনও আইন নেই। যা একেবারেই মিথ্যে কথা।
জিএসটি কম্পেনসেশন সেস অ্যাক্টের আইন অনুযায়ী, গোটা বছরে যে জিএসটি শুল্ক আদায় হবে, তা রাখা হবে জিএসটি কম্পেনসেশন ফান্ডে। যে অ্যাকাউন্টটি পাবলিক অ্যাকাউন্ট হিসাবে গণ্য হয়। যদিও বেআইনিভাবে কেন্দ্র জিএসটি কম্পেনসেশন ফান্ডে সংগৃহিত শুল্ক না রেখে কনসলিডেটেড ফান্ড অফ ইন্ডিয়া বা সিএফআই-তে রাখে। যে ফান্ড থেকে অন্যত্র বহু ক্ষেত্রে সরকার টাকা খরচ করেছে বলে ক্যাগের রিপোর্টে স্পষ্টভাবে খতিয়ান দিয়ে তুলে ধরা হয়েছে।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here