বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ কৌশিক বসু’র আশঙ্কা জনসমর্থন না পেয়েও ক্ষমতা দখল করা হচ্ছে – ব্যাকডোরে গদি দখল গণতন্ত্রে বিপজ্জনক

0

Last Updated on November 3, 2020 8:53 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন: সম্প্রতি ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেয়েও অথবা দ্বিতীয় বা তৃতীয় সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হওয়া সত্ত্বেও বহু রাজ্যে ক্ষমতা দখল করেছে বিজেপি। বিহার বিধানসভার পাশাপাশি দেশের 6 টি রাজ্যের উপনির্বাচনের দিনে বিজেপির নাম উল্লেখ না করেই এইভাবে পেছনের দরজা দিয়ে শুধুমাত্র সংখ্যাতত্ত্বের খেলায় সরকারি ক্ষমতা দখল করার বিপদজনক প্রবণতা নিয়ে দেশবাসীকে সতর্ক করলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ কৌশিক বসু। আজ কৌশিক বসু টুইট করেন, গণতন্ত্রের সবথেকে প্রাথমিক শর্ত হলো দেশের মানুষ এমন নেতাকে জয়ী করবে, যেদিন মানুষের জনসমর্থন হারাবেন সেদিনই যেন সম্মানের সঙ্গে পদ ছেড়ে চলে যাওয়ার সৎ সাহস রাখেন। কিন্তু ইতিহাস সাক্ষী রয়েছে, গণতন্ত্রের এই প্রাথমিক শর্ত অগ্রাহ্য করে পদ আঁকড়ে থাকার জন্য একটা সমগ্র জাতির গণতান্ত্রিক অধিকার এবং উন্নয়ন দশকের পর দশক ধরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
প্রসঙ্গত, উত্তর-পূর্ব ভারতের অরুণাচল প্রদেশ, মনিপুর, মেঘালয়, নাগাল্যান্ড, সিকিমের পাশাপাশি হরিয়ানা, গোয়াতে সরকার গড়ার মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেয়েও প্রথম দ্বিতীয় বা তৃতীয় হয়েও ক্ষমতায় বসেছে বিজেপি। কংগ্রেস শাসিত মধ্যপ্রদেশ এবং কর্নাটকে নিজেদের পেটোয়া রাজ্যপাল দের কাজে লাগিয়ে যাবতীয় সাংবিধানিক রীতি নীতির তোয়াক্কা না করেই নির্বাচিত সরকার ভেঙে দিয়ে ক্ষমতা দখল করেছে বিজেপি। একইভাবে বিহারেও নির্বাচিত সরকার ভাঙ্গিয়ে বিরোধী আসন থেকে রাতারাতি ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি জোট।
অবশ্য সংবিধানে উল্লেখিত গণতন্ত্রের প্রাথমিক শর্ত হিসেবে জনগণের ভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতার বিচারে সরকার তৈরি না করে পেছনের দরজা দিয়ে সংখ্যাতত্ত্বের হিসেবে ক্ষমতা দখলের প্রবণতা বন্ধ করার বিষয়ে কিছু দিন আগেই ভারতে নতুন আইন প্রণয়নের প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করেছিলেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির এন ভি রমানা। কর্নাটকের কংগ্রেস সরকার ফেলে দিয়ে বিজেপির ক্ষমতা দখলের ঘটনায় বিচারপতি রমানা বলেন, ভারতীয় গণতন্ত্রে এইভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেয়েও সরকার বদলের যে ঘটনা একের পর এক রাজ্যে ঘটে চলেছে তা বন্ধ করার জন্য প্রয়োজনে সংসদের নতুন আইন প্রণয়ন এর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। কখনো মন্ত্রিত্ব অথবা লোভ দেখিয়ে একটি নির্বাচিত সরকার ভেঙে সংখ্যালঘু রাজনৈতিক দল যখন সরকার গড়ে আদতে তার ফলে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের নাগরিকদের গণতান্ত্রিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here