রাজ্যপালের বিরুদ্ধে এফআইআর

0
2876

বাংলার নির্বাচিত সরকারকে ভাঙার চক্রান্ত এবং বাংলা ও বাঙালির বিরুদ্ধে লাগাতার কুৎসার অভিযোগে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল শিবসেনা

- Advertisement -

৩৬৫ দিন: রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় রাজভবনে বসে সাংবিধানিক পদ ব্যবহার করে বাংলায় নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী এবং তার সরকারকে ফেলার ষড়যন্ত্র করছেন। এমনই অভিযোগ করে বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেট লিখিতভাবে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল শিবসেনা। বাংলায় শিবসেনার রাজ্য সম্পাদক অশোক সরকার আজ লিখিতভাবে এফআইআর দায়ের করেছেন। রাজ্যের নির্বাচিত সরকারকে ফেলার ষড়যন্ত্রের পাশাপাশি নিয়মিত সোশ্যাল মিডিয়ায় এবং প্রেস কনফারেন্স করে বাংলা এবং বাঙালির বিরুদ্ধে কুৎসা করে চলেছেন এই সাংবিধানিক পদাধিকারী বলেও উল্লেখ করেছেন এফআইআর-এ।
তাই নজিরবিহীনভাবে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে এফআইআর দায়ের করার প্রসঙ্গে শিবসেনার রাজ্য সম্পাদক জানান, বাংলা রাজভবনটাকে দিল্লির বিজেপি নেতাদের খুশি করার তাগিদে বিজেপির রাজ্য সদরদপ্তর বানিয়ে ফেলেছেন জগদীপ ধনকড়। আসলে রাজ্যপাল হওয়ার আগে উনি নিজেই যে সামান্য সময়ের জন্য সাংসদ এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন, এখন আবার কেন্দ্রীয় সরকারে ক্ষমতাসীন বিজেপিকে খুশি করে বাংলার নির্বাচিত সরকার এবং মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে লাগাতার কুৎসা করে নম্বর বাড়াতে চাইছেন। সেইসঙ্গে তাঁর এখন একটাই উচ্চাশা, তাঁর পারফরমেন্সে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব সন্তুষ্ট হলে যদি কোন একটা ভালো সাংবিধানিক পদ পাওয়া যায় অথবা কোনভাবে আবার অন্তত রাজ্যসভায় একটা সাংসদ পদ ফিরে পাওয়া যায়। সংসদে এবারের বাদল অধিবেশনে যেভাবে সংবিধান অমান্য করে গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছে, তার প্রতিবাদে দিল্লির পাশাপাশি সর্বভারতীয় রাজনীতিতে গণতন্ত্রের হত্যাকারী বিজেপির বিরুদ্ধে আমাদের আন্দোলন চলবে।
বিজেপি গোটা দেশেই সমস্ত অ-বিজেপি রাজ্যগুলিতে তাদের পেটোয়া কিছু লোককে রাজ্যপাল পদে বসিয়ে সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলির নির্বাচিত সরকারের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক অ্যাজেন্ডা নিয়ে প্রচার করে চলেছে, যা ভারতীয় গণতন্ত্রের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here