ফুটপাত দখল মুক্ত করতে অভিযান ইংরেজবাজার পুরসভার

0

Last Updated on June 29, 2022 1:06 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন।  ইংরেজবাজার পুরসভা থেকে কর্মসংস্থানের জন্য হকারদের দেওয়া হয়েছিল দোকান ঘর । কিন্তু অদ্ভুতভাবে সেই দোকান থেকে বেরিয়ে রাস্তার একাংশ এবং হাইড্রেন দখল করেই যত্রতত্র চলছিল ব্যবসা। আর এনিয়ে চরম অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু চৌধুরী। দ্রুত হাইড্রেন দখল করে থাকা ঝুপড়িগুলো তুলে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল পুরসভার পক্ষ থেকে। কিন্তু কে শুনে কার কথা ! অবশেষে বুধবার সকাল থেকে মালদা মেডিকেল কলেজ চত্বর সংলগ্ন এলাকায় সমস্ত বেআইনি  জবর দখল বুলডোজার দিয়ে ভেঙে গুঁড়িয়ে দিল ইংরেজবাজার পুরসভা কর্তৃপক্ষ। সংশ্লিষ্ট পুরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু চৌধুরী দাঁড়িয়ে থেকে মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন এলাকার জবরদখল মুক্ত করার কাজের তদারকি চালালেন।

- Advertisement -

ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু চৌধুরী বলেন, হকারদের দোকান দেওয়া হয়েছে, সেই দোকানে বসে বেচাকেনা করার জন্য। অথচ দোকান থেকে বেরিয়ে  ড্রেনের ওপর জবরদখল করে ব্যবসা করা হচ্ছে। এটা কোনো মতেই বরদাশ্ত করা হবে না। হাইড্রেনগুলি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সামান্য বৃষ্টিতে জলে ভাসছে মেডিকেল কলেজে চত্বর।  তার দায়ভার কে নিবে। এজন্য পুরসভার দিকে অভিযোগের আঙুল উঠছে। এই পরিস্থিতিতে ওই এলাকার সমস্ত অস্থায়ী জায়গা দখল মুক্ত করা হয়েছে। দ্রুত হাইডেনগুলির পরিচ্ছন্নতার কাজ করা  হবে।

উল্লেখ্য, মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে সামনের ৩৫ নম্বর জাতীয় সড়কে ধারে পুরসভার পক্ষ থেকে কয়েকশো দোকান ঘর তৈরি করে সরকারি নির্দেশ মেনে বেকারদের বিলি করা হয় । এর ফলে বহু বেকার যুবক-যুবতীরা নিজেদের কর্মসংস্থান ফিরে পেয়েছেন। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ উঠেছিল যে, মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন হকার মার্কেটের বাইরে হাইড্রেন দখল করে এবং রাস্তার একটি অংশ দখল করে বেচাকেনা করা হচ্ছে। যার কারনে, সামান্য বৃষ্টিতেই মেডিকেল কলেজ চত্বরে জল জমে যাচ্ছে। এমনকি বিভিন্ন বিভাগেও জল ঢুকে রোগীদের চিকিৎসা পরিষেবায় সমস্যা দেখা দিচ্ছে। এই অভিযোগের কথা শুনে কয়েকদিন ধরে মালদা মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন এলাকার নিকাশি ব্যবস্থা এবং জবরদখল পরিস্থিতি তদারকি করেন ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু চৌধুরী। তার পরেই সেই জবর দখল উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয় পুরসভার পক্ষ থেকে।

স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য, এতদিন বেআইনি জবরদখল উচ্ছেদ করার মনোভাব কেউ দেখায় নি কেউ। কিন্তু বর্তমান চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু চৌধুরী যে ভাবে উদ্যোগী হয়ে জবরদখল উচ্ছেদ অভিযানের কাজ করেছে তাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু চৌধুরী জানিয়েছেন, বারবার বলা সত্বেও ওই এলাকার একাংশ ব্যবসায়ীরা কিছুতেই কথা শুনছিল না। নিজেদের দোকান থাকা সত্ত্বেও রাস্তার উপর এসে হাইড্রেন বন্ধ করে ব্যবসা  চালাচ্ছিল। এর ফলে সামান্য বৃষ্টিতে মেডিকেল কলেজে জল জমার সমস্যা তৈরি হচ্ছিল। অবশেষে এদিন সেইসব ঝুপড়ি ও অস্থায়ী দোকান গুলি ভেঙে ফেলা হয়েছে। খুব শীঘ্রই নিকাশি নালার পরিচ্ছন্নতার কাজও শুরু করে দেওয়া হবে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here