মরশুমের শুরুতেই বাজারে মিলতে পারে টাটকা ইলিশ

0

Last Updated on June 19, 2022 6:30 PM by Khabar365Din

- Advertisement -

৩৬৫ দিন। বর্ষা এল। আর, সঙ্গে এল রুপোলি খবর। মরশুমের শুরুতেই বাজারে মিলতে পারে টাটকা ইলিশ। উপকূলে ফিরছে ইলিশ ভর্তি ট্রলার। আকার অবশ্য ছোটই। তবে, তাতে কি! ঘোর বর্ষায় বাঙালির রসনাতৃপ্তির অন্যতম সঙ্গী।

সম্প্রতি, কাকদ্বীপ এবং ডায়মন্ড হারবার এলাকায় এসেছে কিছু ইলিশ। বিক্রেতাদের একাংশের মত, এখনই কলকাতার বাজারে নতুন ইলিশ ঢুকছে না। তবে, উপকূলে ট্রলার আসা এবং নিলাম হওয়া মানেই, আর খুব বেশিদিন নয়। যোগানের উপর নির্ভর করেই এবার মানুষ পাবেন তাজা ইলিশ।

যদিও, আপাতভাবে বাজারের ভরসা ঠান্ডা ঘরের জমানো ইলিশ। তাও, দাম দেখে চোখ কপালে। ১ কেজির কম ওজনের ইলিশ, ১০০০ টাকা কেজি। ১ কেজি পেরোলেই ১৫০০ হাজার। সবমিলিয়ে, বরাবরই মধ্যবিত্তের নাগালের বাইরে থেকেছে ইলিশ। এখনই অবশ্যি তাই।

তবে, এবার ইলিশ ভাগ্যি বদলাতে পারে সাধারণের। এমনই মত ব্যবসায়ীদের। উল্লেখ্য, গত বছর দুই দফায় ৪,৬০০ মেট্রিকটন ইলিশ পাঠানোর অনুমতি দিয়েছিল বাংলাদেশ সরকার। পুজোর আগের ১১০০ মেট্রিকটন মাছ এসেছিল রাজ্যে। তারপর, যোগান কম থাকায় সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যায় আমদানি। পুজোর পর যদিও আরও কিছু মাছ ঢুকেছিল রাজ্যে। আর, সেই মাছ জমা হতে থাকে ঠান্ডা ঘরে। সেই দিয়েই চলে সারা বছরের মানুষের রসনাতৃপ্তি।

তথ্য অনুযায়ী, ২০১২ সালের পর থেকে ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ করে বাংলাদেশ। ২০১৯ সাল থেকে আবারও অনুমতি মেলে। অন্যদিকে, ইলিশের মরশুম শেষ হলেও বছর ভর খাদ্য রসিকদের হুজুগ মেটাতে ভরসা থাকে মায়ানমারের (বার্মা) ইলিশ। বর্ষা শেষে মাছে ভাতে বাঙালির চাহিদা মেটায় বার্মা। হাওড়া হোলসেল ফিশ মার্কেট অ্যাসোসিয়েশন এবং ফিশ ইম্পর্টারস অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি সৈয়দ আনোয়ার মাকসুদ জানান, অসময়ে মায়ানমার থেকে আসা ইলিশই ভরসা।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here