ও আলোর পথযাত্রী

0

Last Updated on October 3, 2020 8:38 PM by Khabar365Din

বিজেপির আমলে দেশ অন্ধকারে , টর্চ হাতে মমতার উজ্জ্বল দিনের ডাক

- Advertisement -

৩৬৫ দিন। দেশে আর কোথাও গণতন্ত্রের ছিটেফোঁটা নেই। রাষ্ট্রপতি শাসনের দিকে যাচ্ছে। বিজেপির আমলে ওয়ান নেশন, ওয়ান পলিটিক্যাল পার্টি হয়ে যাচ্ছে। আমার মন পড়ে আছে ওই গ্রামে। ছুটে যেতে ইচ্ছে করছে সেই গ্রামে। শনিবার হাথরস-কাণ্ডের প্রতিবাদে শহরের রাজপথে মিছিল করে এভাবেই হাথরস কাণ্ডের নিন্দা করলেন মমতা। বিজেপির এই অপশাসনের বিরুদ্ধে তাঁর ঘোষণা, করেঙ্গে নয় মরেঙ্গে। বিজেপির কাছে ভয় পেয়ে মরব না। আজ বিকেল ৪টে নাগাদ তারামণ্ডল থেকে মিছিল শুরু করেন মমতা। তাঁর অভিযোগ, দিল্লি, হরিয়ানা উত্তরপ্রদেশ-সহ দেশের একাধিক রাজ্যে বিভিন্ন অপরাধমূলক ঘটনা ঘটেছে। কেউ কোনও বিচার পাননি। দিল্লিতে কেউ শাস্তি পেল? একটা মেয়ের ওপর অত্যাচার হলে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে। এটাই আমরা জানি। কিন্তু হাথরসে দেখলাম নির্যাতিতার দেহ বাড়ির লোকেদের না-দিয়ে পুলিশ নীরবে দহন করে দিল।
পরিবারের লোকের সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিলাম। বলতে পারিনি। কাল আমার পার্টির রাজ্য সভার সংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েনের নেতৃত্বে তৃণমূলের প্রতিনিধি দলকে ১ কিলোমিটার আগে আটকে দেয়। শুনছি কাল থেকে মিডিয়াকেও হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এটা একটা রাজ্য চলছে? মনে রাখবেন, দলিতদের ওপর অত্যাচার হলে আমি দলিতদের পাশে থাকি।
গোটা দেশ আজ অন্ধকারে ডুবে গেছে বলে হাতে টর্চ নিয়ে গোটা দেশে আলো জ্বালানোর বার্তা দেন তিনি। তাঁর কথায়, আমরা নাকি পুজো করতে দিই না, যোগীজি কেন দুর্গাপুজো করতে দিচ্ছেন না? মন্দির, মসজিদ, গীর্জা নিয়ে রাজনীতি করি না। সবাইকে নিয়ে চলি আমরা। শুধু জাত, ধর্ম নিয়ে ওদের কারবার। আমি বিশ্বাস করি আমার একটাই কাস্ট, যার নাম মানবিকতা। বিজেপি কে? ওরা কোন সাহসে সবার পদবি নিয়ে খেলা করছে? বিজেপি মানে লজ্জা। যখনই ভোট আসে, তখনই পাকিস্তান, পুলওয়ামা সামনে এসে দাঁড়ায়। রেল, থেকে এয়ার ইন্ডিয়া, সব বেচে দেওয়া হচ্ছে। কত লোকের কাজ চলে গিয়েছে। বিজেপির লজ্জা পাওয়া উচিত। আমার মতে করোনার চেয়ে বিজেপি সবচেয়ে বড় প্যান্ডামিক। তাঁর অভিযোগ, এজেন্সির মাধ্যমে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ফেক খবর প্রকাশ করে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা চলছে।

ব্লকে ব্লকে প্রতিবাদের নির্দেশ

হাথরস-কাণ্ডের প্রতিবাদের দেবীপক্ষ শুরু হওয়ার আগে পর্যন্ত দলীয় কর্মীদের পাড়ায়-পাড়ায়, ব্লকে-ব্লকে মিছিল, পোস্টারিংয়ের নির্দেশ দিলেন মমতা। গান্ধি মূর্তির মঞ্চে দাঁড়িয়ে তাঁর আহ্বান, বাংলার একটা সংস্কৃতি আছে। এমনই ঘটনা সিঙ্গুরে ঘটেছিল। সেই সময় আমি ২৬ দিন অনশন করেছিলাম। আজ আমাদের এই পৈশাচিক ঘটনার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here