চতুর্থ ঢেউয়ের মাঝেই নতুন স্ট্রেন নিয়ে সতর্ক করছেন বিজ্ঞানীরা

0

Last Updated on August 1, 2022 6:06 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। নভেম্বরে আসবে নতুন স্ট্রেন? যেটি পুরোনো ভ্যাকসিনকে এড়িয়েই প্রবেশ করবে মানব শরীরে? বাড়াবে হাসপাতালে ভর্তির পরিমাণ? চতুর্থ ঢেউয়ের মাঝেই দুশ্চিন্তার কথা শোনাচ্ছে বিজ্ঞানীরা। এই প্রসঙ্গে ভারত বায়োটেকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ড. কৃষ্ণ ইলার বক্তব্য, শ্বাসতন্ত্রের সম্পূর্ণ সুরক্ষার জন্যে ন্যাসাল ভ্যাকসিন নেওয়া প্রয়োজন। কারণ ইনজেকশনের মাধ্যমে নেওয়া ভ্যাকসিন শুধুমাত্র শরীরের নীচের অংশকে রক্ষা করে থাকে।

- Advertisement -

এক সাম্প্রতিক আলোচনায় তিনি বলেন, ভ্যাকসিন নেওয়ার পরও মানুষ করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। কারণ, ইনজেকশনের মাধ্যমে শরীরের নীচের অংশ সুরক্ষিত হলেও উপরের শ্বাসতন্ত্র অসুরক্ষিত থেকে যাচ্ছে। ন্যাসাল ভ্যাকসিন উপরের অংশকে সুরক্ষিত করে। আশাবাদী, এই দুই পদ্ধতিতে আরও বেশি করে সুরক্ষিত থাকবে মানুষ। রাজ্যে কমছে করোনা সংক্রমণ। দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা নেমেছে অনেকটাই।

তবে, মৃত্যুহার যথেষ্ট বেশি। আর, এই কাঁটাই ভাবাচ্ছে স্বাস্থ্যকর্তাদের। জুনের শুরু থেকেই বাড়তে শুরু করেছিল সংক্রমণ। সেটা ধীরে ধীরে দুই সংখ্যা, তিন সংখ্যা এবং শেষে চার সংখ্যায় পৌঁছে তিন হাজারের গণ্ডি পেরোয়। তবে, ক্রমাগতই বাড়ছে হাই রিস্ক গ্রুপের রোগীর সংখ্যা। এমত অবস্থায় রাজ্যবাসীকে সতর্ক করে, করণীয় নিয়ে একটি বিস্তারিত নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর।

নির্দেশিকায়, লং কোভিড নিয়েও সতর্ক করা হয়েছে। কিছু রোগীদের মধ্যে লক্ষণ ৪ সপ্তাহ পর্যন্ত আবার কিছু ক্ষেত্রে ১২ সপ্তাহ পর্যন্ত স্থায়ী হচ্ছে উপসর্গ। নির্দেশিকা অনুযায়ী, হাত ধোয়া, সামাজিক দূরত্ব, খাদ্যাভ্যাস, শরীর চর্চা, মদ্যপান এড়িয়ে চলা, তামাক জাত দ্রব্য বর্জন সহ একাধিক বিষয়ের উপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও, চেষ্ট পেন, হাইপারটেনশন, হাই ফিভার, ৯৩ নীচে অক্সিজেন নেমে যাওয়া, শ্বাসকষ্টের সমস্যা তৈরি হলে চিকিৎসকের সঙ্গে তৎক্ষণাৎ যোগাযোগ করা।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here