রিয়া মুক্ত

0
4493

নারকোটিক কন্ট্রোল ব্যুরোর প্রভাবশালী তত্ত্ব সরাসরি খারিজ হাইকোর্টে। প্রসঙ্গত প্রথম থেকেই হাইকোর্ট গাঁজা কাণ্ডে রিয়ার গ্রেপ্তারের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। রিয়ার ভাই শৌভিক জামিন পেলেন না।

- Advertisement -

৩৬৫ দিন: মুম্বই। গাঁজা পাচারের অভিযোগে গ্রেফতার হয়ে ২৮ দিন জেলে থাকার পর অবশেষে জামিন পেলেন রিয়া চক্রবর্তী। ১ লক্ষ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে বুধবার রিয়া চক্রবর্তীর জামিন মঞ্জুর করল বোম্বে হাইকোর্ট। রিয়া চক্রবর্তীর পাশাপাশি জামিন পেয়েছেন তার হাউস ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা এবং রাঁধুনী দীপেশ সাওয়ান্ত। তবে রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তীর জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন বিচারক ভি কোতওয়াল। প্রসঙ্গত, মঙ্গলবারই নারকোটিক কন্ট্রোল ব্যুরোর আবেদনের ভিত্তিতে বিশেষ এনডিপিএস আদালতে রিয়ার বিচার বিভাগীয় হেফাজতের মেয়াদ বাড়িয়ে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত করা হয়। বিশেষ এনডিপিএস আদালত রিয়া, শৌভিক ও আরো ১৮ জনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের মেয়াদ বৃদ্ধি করেছিল ২০ অক্টোবর অবধি। তবে তার আগেই প্রথমবার এনডিপিএস আদালত তাদের জামিনের আবেদন খারিজ করার পর হাইকোর্টে গিয়েছিলেন রিয়া চক্রবর্তীর আইনজীবী সতীশ মানসিন্ধে।
আজ হাইকোর্টে রিয়ার জামিনের আবেদনের শুনানি শুরু হওয়ার পরে সরকার পক্ষের থেকে বলা হয় যে জামিনের নির্দেশ অন্তত এক সপ্তাহ বাদে দেওয়া হোক। এখনই রিয়াকে জামিন দেওয়া হলে নিজের প্রভাব খাটিয়ে মাদক মামলার তথ্য-প্রমাণ বিলোপ করে ফেলতে পারেন তিনি। কিন্তু রাজি হয়নি বিচারক কোটওয়ালের বেঞ্চ।
হাইকোর্টের রিয়ার জামিনের আবেদন মঞ্জুর হলেও বেশ কয়েক দফা শর্ত চাপিয়েছে আদালত। আগামী ১০ দিনে থানায় প্রত্যেকদিন হাজিরা দিতে হবে রিয়াকে। তাঁকে পাসপোর্ট থানায় জমা রাখতে হবে। বিদেশে যাওয়ার আগে নিতে হবে আদালতের অনুমতি। এমনকী গ্রেটার মুম্বই ছাড়ার আগেও জানিয়ে যেতে হবে তদন্তকারী অফিসারদের।অন্যদিকে, সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে সুশান্ত সিং রাজপুতের ব্যাংক একাউন্ট থেকে ১৪ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে নিজের একাউন্টে এবং বিদেশে পাচারের অভিযোগ রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে উঠেছিল তার কোনো তথ্য-প্রমাণ পাওয়া যায়নি। মুম্বই পুলিশ তদন্ত করার সময় যে তথ্য পাওয়া গিয়েছিল দ্বিতীয় বার অডিট করানোর পরে সিবিআই জানতে পেরেছে সুশান্তের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে মাত্র ৫৫ লক্ষ টাকা নিজের বিদেশযাত্রা এবং সাজগোজের জিনিসপত্র কেনার জন্য ব্যক্তিগত কারণে খরচ করেছিলেন রিয়া চক্রবর্তী। তাই সুশান্ত সিং রাজপুতকে গাঁজা খাইয়ে তাঁর কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করা হচ্ছিল তাও ভিত্তিহীন হয়ে পড়ল বলে মনে করছেন গোয়েন্দারা।
প্রসঙ্গত, মাদক যোগের অভিযোগে ৪ সেপ্টেম্বর সৌভিক ও সুশান্তের সহকারী স্যামুয়েল মিরান্ডাকে গ্রেপ্তার করে তারা। ৫ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার করা হয় সুশান্তের পরিচারক দীপেশ সাওয়ান্তকে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here