অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির ভ্যাকসিনের কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি

0

Last Updated on August 31, 2020 12:17 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন ।এখনও পর্যন্ত অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির ভ্যাকসিনের কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি বলে জানালেন পুনের চিকিৎসকরা । মঙ্গলবার থেকে দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হওয়ার পর আজ এই ঘোষণা ।
সেরাম জানিয়েছে, এই পর্বে মোট ১৬০০ জনকে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। তবে প্রয়োজনে স্বেচ্ছাসেবকের সংখ্যা বাড়ানোও হতে পারে। পুণের ভারতী বিদ্যাপীঠ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে এখনও অবধি দু’জন স্বেচ্ছাসেবককে টিকা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আজকের মধ্যেই আরও ২৫ জনকে টিকার ইঞ্জেকশন দেওয়া হতে পারে।
সেরাম জানিয়েছে, এই পর্বে মোট ১৬০০ জনকে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। তবে প্রয়োজনে স্বেচ্ছাসেবকের সংখ্যা বাড়ানোও হতে পারে। ভারতী বিদ্যাপীঠ মেডিক্যাল কলেজের ডিরেক্টর ডক্টর সঞ্জয় লালওয়ানি বলেছেন, প্রথম কাদের টিকার ইঞ্জেকশন দেওয়া হবে তার বাছাইপর্ব শুরু হয়েছিল মঙ্গলবার থেকেই। শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে স্বেচ্ছাসেবকদের। প্রাথমিকভাবে দু’জনকে টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে। এখনও অবধি কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।
ডক্টর সঞ্জয় বলেছেন, ১৮ বছর থেকে ৫০ বছর অবধি স্বেচ্ছাসেবকদের টিকার ট্রায়ালের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। প্রত্যেকের রিয়েল টাইম আরটি-পিসিআর টেস্ট ও অ্যান্টিবডি টেস্ট করা হয়েছে। কোনও ক্রনিক রোগ থাকলে টিকার ডোজ দেওয়া যাবে না। তাই বহুবার শারীরিক পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়েছেন ডাক্তাররা। গর্ভবতী মহিলারা এই ট্রায়ালে অংশ নিতে পারবেন না। তাছাড়া, হার্টের রোগ, ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, কিডনি ফেলিওর বা অন্য কোনও জটিল রোগ থাকলেও টিকার ট্রায়ালে অংশ নেওয়া যাবে না।
প্রথম যে দু’জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে তাঁদের বয়স ৩২ বছর ও ৪৮ বছর। দু’জনেই বেসরকারি সংস্থার কর্মী। ভারতী বিদ্যাপীঠ হাসপাতালে আরও ২৫ জনকে টিকা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ডিরেক্টর ডক্টর সঞ্জয় লালওয়ানি। টিকার ডোজ ০.৫ মিলিলিটার। ইন্ট্রামাস্কুলার অর্থাৎ পেশিতে টিকার ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়েছে। ডাক্তার জানিয়েছেন, টিকা দেওয়ার পরে দুজনের মধ্যে কোনও সাইড এফেক্টস এখনও দেখা যায়নি।

- Advertisement -
Advertisement