আলুর কালোবাজারি রুখতে বাজারে ইবি হানা

0

Last Updated on September 7, 2020 8:16 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। আগামীকাল লকডাউন। এই কারণেই কিছু মানুষ কালকের বাজার আজই করে রাখবে। ঠিক সেই সুযোগ বুঝেই আলুর দাম হয়েছে ৪০টাকা। বাজারে ছেয়ে গিয়েছে অসাধু ব্যবসায়ীর রমরমা। ফাঁক বুঝেই কোপ দিচ্ছে মানুষের মাথায়। খবর নিয়ে জানা গেল, গরিয়াহাট মার্কেট, লেক মার্কেট, ঢাকুরিয়া মার্কেট সহ কিছু বাজারে চন্দ্রমুখী আলু বিকোচ্ছে ৩৮-৪০ টাকা। জ্যোতি আলুর দাম বেড়ে হয়েছে ৩২-৩৪টাকা ( আগে ছিল ৩০টাকা)। তাছাড়া এমনিতেই বাজারে সবজির দাম নিয়েই মাথায় হাত সবারই। টাস্ক ফোর্সের সদস্য রবীন্দ্রনাথ কোলে জানান, এরকম হওয়ার কারণ নেই। কিন্তু কিছু মানুষ আছে যারা সময় বুঝে ব্যবসা করে নিতে চাইছে। খুচরো বিক্রেতাদের মধ্যে সবাই এই কাজ করছেন না। তবে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী রয়েছেন তারা এমনভাবে ব্যবসা করছেন। এছাড়াও লকডাউনের আগে বাড়িতে সবজি-মাছ-মাংস কিনে রাখে। সেই সুযোগ বুঝেই দাম বাড়িয়ে নিচ্ছেন বিক্রেতারা। খুচরো বাজারেই এমনটা হচ্ছে।’ জোগান কম নেই আলুর। তা সত্ত্বেও রাজ্যের খুচরো বাজারে আলু কেন অগ্নিমূল্য, বুঝতে পারছেন না কেউই। সরকার পদক্ষেপ করছে। আলুর দাম বেঁধে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখনও বেশির ভাগ বাজারে গিয়ে হাত পুড়ছে ক্রেতার। কোথাও আরও বেশি। এ বিষয়ে টাস্ক ফোর্সের আরেক সদস্য কমল দে জানান, ‘সরকারের তরফ থেকে কোনও খামতি নেই। জোগান বেশ রয়েছে আলুর। দাম বাড়িয়ে বিক্রি করছে খুচরো বাজারের কিছু বিক্রেতারা।’ এছাড়াও ডিমের দাম নিয়েও চিন্তায় শহরবাসী। ডিম যেখানে পিস প্রতি ছিল সাড়ে ৪ থেকে ৫টাকা। যেখানে তা বেড়ে হয়েছে ৬টাকা। লাফিয়ে বেড়েছে বেগুনের দামও। কোথাও ৮০ আবার কোথাও ১০০ এই দামেই বিক্রি হচ্ছে। গত চারদিন ধরে দাম বেড়ে একই রকম রয়েছে পটল-ঝিঙের দাম।প্রতি কেজি ৬০ টাকা করেই বিকোচ্ছে শহরের বাজার গুলিতে।এছাড়াও লঙ্কা ১২০ টাকা, কুমড়ো ২৫ টাকা, ভেন্ডি ৪০ টাকা সহ অন্যান্য সবজির দামই একই রয়েছে। তবে আলুর-ডিম এবং বেগুনের দাম নিয়ে মাথায় হাত পড়েছে সবারই।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here