ক্রীড়ামন্ত্রীর উদ্যোগে হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত প্রাক্তন অলিম্পিয়ান নিখিল নন্দী চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছে রাজ্য সরকার

0
1095

৩৬৫ দিন। তাঁর নেতৃত্বে ইস্টার্ন রেলে খেলেছেন সদ্য প্রয়াত কিংবদন্তি ফুটবলার পিকে বন্দোপাধ্যায়। ১৯৫৬ মেলবোর্ন অলিম্পিকে চতুর্থ স্থান অধিকার করা ভারতীয় ফুটবল দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন। ভারতীয় ফুটবলের সোনালী যুগের সেই ফুটবলার নিখিল নন্দী করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেন। প্রাক্তন এই মিডফিল্ডারের বয়স হয়েছে ৮৯ বছর। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে দু’দিন আগেই সন্ধ্যায় তিনি হঠাৎই অসুস্থ বোধ করছিলেন। তারপর নিজের ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে শুয়ে পড়েন। রাত আটটা নাগাদ ছেলে সমীর নন্দী বাবার ঘর থেকে গোঙানির আওয়াজ পান। তারপর দরজা ভেঙে ঢুকে তাঁকে উদ্ধার করা হয়। মাথা, নাক ফেটে রক্তাক্ত অবস্থায় তিনি মাটিতে পড়ে ছিলেন। ছেলে সমীর নন্দী জানিয়েছেন ঘরের মধ্যেই পড়ে গিয়েছিলেন এই প্রাক্তন অলিম্পিয়ান। তারপর পরিবারের তরফে ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁর উদ্যোগেই নিখিল নন্দীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ক্রীড়ামন্ত্রীর উদ্যোগে প্রথমে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। কিন্তু সেখানে কিছু সমস্যা থাকায় শেক্সপিয়ার সরণির এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। পরে সল্টলেকের এক বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। হাসপাতালে ভর্তির পরই তাঁর করোনা টেস্ট হয়। এবং সেই রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। প্রাক্তন এই অলিম্পিয়ানের চিকিৎসার সম্পূর্ণ খরচ রাজ্য সরকার বহন করবে বলে ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস জানিয়েছেন। ভারতীয় ফুটবলের সোনালী প্রজন্মের মিডফিল্ডার নিখিল নন্দী এই বয়সেও প্রতিদিন মাঠে গিয়ে ফুটবলার তৈরীর কাজে চালিয়ে যাচ্ছিলেন। তাঁরা চার ভাই কলকাতা ময়দানে ফুটবল খেলেছেন। তার মধ্যে দুই ভাই অলিম্পিকে অংশ নিয়েছেন। পরিবার সূত্রে জানানো হয়েছে নিখিল নন্দীর শারীরিক অবস্থা বর্তমানে কিছুটা স্থিতিশীল। তবে রক্তচাপ জনিত সমস্যা এখনও রয়েছে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here