ফেসবুকের জুকারবার্গকে চিঠি ডেরেকের, মুখ বাঁচাতে বিজেপিরও চিঠি

0

Last Updated on September 6, 2020 10:22 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন: ২৮ আগস্ট তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস এর আগে বিজেপি বিরোধী প্রচার রুখতে তৃণমূল সমর্থক ও নেতাদের ফেসবুক হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়ার প্রতিবাদ জানিয়ে ফেসবুককে চিঠি পাঠালো তৃণমূল। ভারতে বিগত বেশ কয়েকটি নির্বাচনে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সরাসরি বিজেপির সঙ্গে অশুভ আঁতাত করে বিরোধীদের প্রচার বন্ধ করে দেওয়ার পাশাপাশি বিজেপি নেতাদের পক্ষে প্রচার চালিয়েছে। গতবছর পার্লামেন্টে তৃণমূলের এই অভিযোগের পরেই সম্প্রতি রীতিমতো তথ্য-প্রমাণসহ বিষয়টি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে মার্কিন দৈনিক ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল। কিন্তু তার পর থেকেই রীতিমতো প্রতিহিংশা প্রবণ হয়ে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তৃণমূল নেতাদের প্রোফাইল এবং পেজ ডিলিট করে দিয়ে বিজেপিকে রাজনৈতিক সুবিধা পাইয়ে দিতে চেষ্টা করে চলেছে বলে অভিযোগ করে ফেসবুকের তরফে নাতাশা জগকে চিঠি দিলেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ তথা দলের সর্বভারতীয় মুখপাত্র ডেরেক ও’ব্রায়েন।তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসের আগে দলের সমর্থকদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও পেজ ডিলিট করে দেওয়া হয়েছে। এমনই অভিযোগ তুলে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে ফেসবুককে চিঠি দিয়েছেন তিনি। এই চিঠিতে ডেরেক অভিযোগ করেছেন, ২৮ আগস্ট তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পূর্ব নির্ধারিত প্রতিষ্ঠা দিবসের অনুষ্ঠানের আগে কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড লঙ্ঘনের অভিযোগে হোয়্যাটসঅ্যাপ ও ফেসবুক থেকে তৃণমূল নেতা ও সমর্থকদের শয়ে শয়ে ফেসবুক পেজ ও অ্যাকাউন্ট মুছে দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। অন্যদিকে গোটা পৃথিবী জুড়ে ভারতে নির্বাচন জেতার জন্য ফেসবুকের তরফে বিজেপির সঙ্গে গোপন আঁতাতের কথা প্রকাশ্যে আসার পরে দেশের আইন মন্ত্রী তথা বিজেপি সাংসদ রবিশঙ্কর প্রসাদ কার্যত সাফাই দেওয়ার জন্য চিঠি পাঠালেন ফেসবুক কর্ণধার মার্ক জুকেরবার্গকে। রবিশংকর প্রসাদের দাবি, প্রতি দেশের জন্য আলাদা গাইডলাইনস দেওয়া উচিত ও নিরপেক্ষ ভাবে কাজ করা উচিত ফেসবুকের। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে দক্ষিণপন্থী আদর্শে বিশ্বাসী অনেক ফেসবুক পেজ ডিলিট করে দেওয়া হয় বলে তাঁর কাছে অভিযোগ এসেছে। এই নিয়ে ফেসবুকের কাছে কোনও নালিশ করেও সুরাহা হয়নি বলে তিনি জানান। শুধু তাই নয় ভারতে ফেসবুকের ব্যবসাকে আরো বাড়তি চাপ দেওয়ার জন্য রবিশঙ্করের অভিযোগ ফেসবুক ইন্ডিয়ার শীর্ষ আধিকারিকেরা গত কয়েকদিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সহ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সদস্যকে অসম্মান করেছে।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here