বাংলায় নিয়ন্ত্রিত সংখ্যা লোকাল ট্রেন এবং মেট্রো চালানোর বিষয় চিন্তাভাবনা

0

Last Updated on August 29, 2020 11:07 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন: সেপ্টেম্বরের শুরু থেকেই বাংলায় লোকাল ট্রেন এবং মেট্রো নিরাপত্তা বিধি মেনে চালালে রাজ্য সরকার আপত্তি করবে না। আজ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের ক্যাবিনেট বৈঠকের পরে এই সিদ্ধান্ত জানানোর পর এই বিভাগীয় স্তরে কিভাবে প্রায় পাঁচ মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকার পরে লোকাল ট্রেন এবং মেট্রো চালানোর জন্য কি কি ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন তা নিয়ে আলোচনা শুরু করেছে রেলের আধিকারিকেরা। প্রসঙ্গত, রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি ও লকডাউন নিয়ে আজ নবান্নে রাজ্য মন্ত্রিসভার ক্যাবিনেট বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠক শেষে রাজ্যে ট্রেন ও মেট্রো চলাচলের ক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে জানান, মেট্রো চললে আপত্তি নেই ৷ তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এক চতুর্থাংশ লোকাল ট্রেন চালানো যেতে পারে। এই নিয়ে রেল চাইলে রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে পারে। এর আগেও মুখ্যমন্ত্রী নিজে উদ্যোগী হয়ে রাজ্যের বিভিন্ন জরুরী পরিষেবা সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য কলকাতা মেট্রো কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানিয়েছিলেন নিয়ন্ত্রিতভাবে যাবতীয় নিরাপত্তা বিধি মেনে মেট্রো পরিষেবা শুরু করার জন্য। কলকাতা মেট্রো কর্তৃপক্ষ তা নিয়েও যাবতীয় প্রস্তুতি সেরে ফেললেও কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমোদন না পাওয়ায় তা কার্যকর হয়নি।
প্রাথমিকভাবে স্থির হয়েছে কলকাতায় স্বাভাবিক সময়ের মত মেট্রো না চালানো হলেও কম সংখ্যক মেট্রোতে জরুরী পরিষেবা সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের পাশাপাশি কিছু সংখ্যক সাধারণ যাত্রী নিয়ে কিভাবে পরিষেবা শুরু করা যায় তার রূপরেখা তৈরি করা হবে। তবে প্রতিটি ক্ষেত্রেই মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক প্রত্যেক যাত্রীর ক্ষেত্রেই। লোকাল ট্রেন চালু করা হলেও শুধুমাত্র প্রতিটি আসন সংখ্যার ভিত্তিতে যাত্রী পরিবহন শুরু করতে প্রস্তুতি চলছে। তবে পুরো বিষয়টির উপরেই কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রকের অনুমোদন প্রয়োজন বলে পূর্ব এবং দক্ষিণ পূর্ব রেলওয়ে সূত্রে জানা গিয়েছে।
কোন প্লাটফর্ম টিকিট ইস্যু করা হবে না। মোবাইলে মেসেজের মাধ্যমে টিকিট কাটা এবং মাসিক টিকিট কাটার জন্য টোকেন এর ব্যবস্থা করতে চাইছে রেল। প্রতি ক্ষেত্রেই প্লাটফর্মে ঢোকার আগে সেন্সর লাগানো কিওস্ক এর সামনে নিজেদের টিকিটের টোকেন অথবা মেসেজে আশা টিকিটের কিউআর কোড স্ক্যান করতে হবে যাত্রীদের।

- Advertisement -
Advertisement