শান্তিপুরের উপনির্বাচনে অভিষেকের হুংকার, খোলা মাঠে আসুন ভাজপাকে হারাব ১০-০ গোলে

0
119

৩৬৫ দিন। উন্নয়নে পেরে উঠছে না তাই বাংলাদেশের হিংসাকে টেনে নিয়ে এসে বলছেন শান্তিপুরে জিতবেন! চ্যালেঞ্জ করে বলছি একদিকে আপনারা থাকুন আর আরেকদিকে আমি থাকবো। ১০-০ গোল নিয়ে আপনাদের মাঠের বাইরে করতে পারি তা হলে রাজনীতির আঙিনায় পা রাখব না- মঙ্গলবার শান্তিপুর উপনির্বাচনের জনসভা থেকে চাঁচাছোলা ভাষায় ভাজপাকে তীব্র আক্রমণ করলেন তৃণমূলের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। অভিষেকের কথায়, বাংলাদেশের ঘটনা ‘ন্যক্কারজনক’। তবে ওই ঘটনা নিয়ে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর সাম্প্রতিক মন্তব্যের কথাও উঠে এসেছে অভিষেকের বক্তব্য। এ নিয়েই তাঁর কটাক্ষ, ‘কারও সর্বনাশ তো কারও পৌষ মাস।’ এমন ভোট দেবেন যাতে বিজেপি 50 বছর এই রায় ভুলতে না পারে। অভিষেকের প্রশ্ন, ‘হিন্দু ধর্মের ধারক আর বাহক বলে যাঁরা নিজেদের দাবি করেন, আপনাদের কাছে ভোট চান। সাত বছর কেন্দ্রে সরকার, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

- Advertisement -

তাঁদের জিজ্ঞাসা করি, মোদীর আমলে নদিয়ার জন্য, হিন্দু ধর্মের জন্য, বৈষ্ণব ধর্ম, সনাতন ধর্মের জন্য, সর্ব ধর্ম সমন্বয় রক্ষা করার জন্য বিজেপি কী করেছে? এখন কেন বাংলাদেশ যাচ্ছেন না?’ অভিষেক বলেন বিজেপি সরকার যদি ফের ক্ষমতায় আসে তবে দেশ আফগানিস্তান হয়ে যাবে। অভিষেকের মতে, ‘বিজেপি করোনার থেকেও খারাপ ভাইরাস। ওদের টিকা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রথম টিকাটা আপনারা দেবেন ৩০ নভেম্বর। আর দ্বিতীয় টিকাটা দেবেন আগামী ২০২৪ সালে।’ গত বিধানসভা ভোটের শান্তিপুর আসনে জেতেন ভাজপা প্রার্থী জগন্নাথ সরকার। যদিও পরবর্তীতে তিনি বিধায়ক পদ ছেড়ে তার আগের সাংসদ পদ ফিরে যান সেদিন তাকেও একহাত নেন অভিষেক। তিনি বলেন, ‘মানুষের রায়কে প্রত্যাখ্যান করে মন্ত্রী হয়ে বা সাংসদ হয়ে দিল্লির চাটুকারিতা করছে। বিজেপি শান্তিপুরের জন্য কী করবে? সাংসদ জগন্নাথ সরকার শান্তিপুরের মানুষের জন্য কী করেছেন? ওঁরা দিল্লির তল্পিবাহক। তাঁদের কাছে নম্বর বাড়ান।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here