তাজপুরে টেন্ডারে সর্বোচ্চ দর হাঁকল আদানি পোর্টস

0

Last Updated on March 26, 2022 11:07 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। বেঙ্গল মিনস বিজনেস। গোটা দেশের মধ্যে বিনিয়োগের সেরা গন্তব্য বাংলা। তাই মমতার (Mamata Banerjee) বাংলায় বিনিয়োগ করতে সর্বোচ্চ দর হাঁকল দেশের সবচেয়ে ধনী শিল্পগোষ্ঠী। পূর্ব মেদিনীপুরের তাজপুরে গভীর সমুদ্র বন্দর তৈরি করার জন্য প্রায় ৭০০০ কোটি টাকার প্রকল্পে বিনিয়োগ করার জন্য টেন্ডার প্রক্রিয়ায় সর্বোচ্চ দর হাঁকলো আদানি গোষ্ঠী (Adani Group)।প্রাথমিকভাবে তাজপুর গভীর সমুদ্র বন্দর ( Tajpur Deep Sea Port ) প্রকল্পের জন্য একাধিক প্রথম সারির দেশি এবং বিদেশি সংস্থা আগ্রহ প্রকাশ করেছিল। যদিও শেষপর্যন্ত দর হেঁকেছে শুধুমাত্র গৌতম আদানির মালিকানাধীন আদানি গোষ্ঠী এবং সজ্জন জিন্দলের মালিকানাধীন জেএসডব্লিউ গ্রুপ।

- Advertisement -

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বারেবারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) এবং কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে তাজপুরে গভীর সমুদ্র বন্দর তৈরি করার জন্য কেন্দ্রীয় প্রকল্প ঘোষণার দাবি জানালেও কেন্দ্রের ভাজপা সরকার তাতে কর্ণপাত করেনি। এরপরে মমতা ঘোষণা করেন বাংলার সরকার নিজের দায়িত্বে পূর্ব মেদিনীপুরের কাজ করে গভীর সমুদ্র বন্দর তৈরি করবে।
মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার পরেই রাজ্য শিল্পোন্নয়ন নিগমের তত্ত্বাবধানে তাজপুর গভীর সমুদ্রবন্দরের বিনিয়োগের জন্য গ্লোবাল টেন্ডারের প্রক্রিয়া শুরু হয়। সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, গ্লোবাল টেন্ডার প্রক্রিয়ায় জোরদার টক্কর হয় জেএসডব্লিউ গ্রুপের সঙ্গে। শেষপর্যন্ত ৭০০০ কোটি টাকার তাজপুর বন্দর প্রকল্পের জন্য সবথেকে বেশি দর হাঁকল আদানি পোর্ট। নাম গোপন রাখার শর্তে এক সরকারি আধিকারিককে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা জানিয়েছে, মোট রাজস্বের ০.২৫ শতাংশ শেয়ারের প্রস্তাব দিয়েছিল আদানি পোর্ট। তার প্রেক্ষিতে জেএসডব্লিউ গ্রুপ ০.২৩ শতাংশ শেয়ারের প্রস্তাব দিয়েছিল। পরবর্তীতে সেই শেয়ারের পরিমাণ চার শতাংশ হয়ে যাবে। তবে সেটা ৯৯ বছর ছাড়ের পর।
রাজ্য শিল্পোন্নয়ন নিগম সূত্রে জানা গিয়েছে, আপাতত সেই আদানি গোষ্ঠীর সেই দরের প্রস্তাব রাজ্য মন্ত্রিসভার ক্যাবিনেট বৈঠকে পেশ করা হবে। মমতার নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেলেই আদানি পোর্টের হাতে যাবে তাজপুর বন্দর প্রকল্প। প্রসঙ্গত আগামী মাসেই বাংলায় অনুষ্ঠিত হবে বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন। এবারের বিশ্ব বঙ্গবাণী’ কে সম্মেলনে উপস্থিত থাকার জন্য মমতা নিজে আমন্ত্রণ জানিয়ে এসেছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে। আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে আদানি গোষ্ঠীর কর্ণধার গৌতম আদানিকেও। গত বছরের ডিসেম্বরে নবান্নে এসে মমতার সঙ্গে দীর্ঘক্ষন বৈঠক করেছিলেন গৌতম আদানি। সেই আলোচনার পরে গত মাসে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আবার নবান্নে এসে বৈঠক করেন গৌতমের (Gautam Adani) ছেলে করণ আদানি (Karan Adani)। আদানি পোর্টের কর্ণধার করণ আদানির সঙ্গে সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আদানি গোষ্ঠীর একাধিক আধিকারিক।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here