কেন্দ্রীয় চক্রান্ত ব্যর্থ, শেষপর্যন্ত জামিন পেল আরিয়ান, সমীরের বিরুদ্ধে সিট গঠন

0

Last Updated on October 29, 2021 12:31 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। ছ‍লে বলে কৌশলে সময় কেনার মরিয়া চেষ্টা। প্রভাবশালী তত্ত্ব খাড়া করে জামিনের তীব্র বিরোধীতা- মুম্বাই মাদক মামলায় শাহরুখ পুত্র আরিয়ানকে আটকে রাখতে চেষ্টার কসুর করেনি এনসিবি কিন্তু বৃহস্পতিবার যাবতীয় ষড়যন্ত্র মাঠে মারা গেল। এনসিবি-র যাবতীয় আপত্তি উড়িয়ে আরিয়ানকে জামিন দিল বোম্বে হাইকোর্ট। আরিয়ানের পাশাপাশি জামিন পেয়েছেন আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধামেচাও। কেন আরিয়ান সহ তিনজনকে আদালত জামিন দিল সেই রায়ের ব‍্যাখ‍্যা শুক্রবার দেবেন বিচারপতি নীতিন সাম্বর। আইনজ্ঞরা মনে করছেন, এই ব‍্যাখ‍্যার মোড়কে এনসিবি-র জন‍্য উচ্চ আদালতের প্রবল ঝাড় অপেক্ষা করে আছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে শুক্র অথবা শনিবার ‘মন্নতে’ ফিরতে পারেন আরিয়ান। বস্তুত আরিয়ানের বিরুদ্ধে কোনো রকম তথ্যপ্রমাণ না থাকায় প্রথম থেকেই আদালতে সময় কেনার কৌশল নেয় এনসিবি। কখনো সাক্ষী অনুপস্থিত এই অজুহাতে আবার কখনো তদন্তকারী অফিসার আসেননি এই বলে সময় কিনতে থাকেন এনসিবির আইনজীবী অনিল সিং। বৃহস্পতিবার আড়াইটের কিছু পরে শুনানি শুরু হয়। আরিয়ানের জামিনের আবেদন জানান দেশের প্রাক্তন অ্যাটর্নি জেনারেল মুকুল রোহতগি। তিনি বলেন, ২৫ দিন ধরে আরিয়ান খান কারাগারে বন্দি তাকে জেরা করে এনসিবি কি তথ্য পেয়েছে তারা তারা জানায়নি আরিয়ানের কাছ থেকে কোন মাদক উদ্ধার হয়নি সুতরাং তাকে আটকে রাখা তার মৌলিক অধিকার বিরোধী এটা ব্যক্তিস্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ।

- Advertisement -

জামিনের তীব্র বিরোধিতা করেন এনসিবির আইনজীবী অনিল সিং। অনিল সিং আদালতে জানান, আরিয়ানের কাছে থেকে মাদক পাওয়া না গেলেও আরবাজের কাছে থেকে পাওয়া গেছে। এনসিবির দাবি আরিয়ানের বিরুদ্ধে তাঁদের কাছে যথেষ্ট প্রমাণ আছে। অন্যদিকে মুকুল রোহাতগি এদিন আদালতে বলেন, আরিয়ানের সঙ্গে আটক হওয়া যে পাঁচজনের থেকে মাদক পাওয়া গেছে তার দায় আরিয়ানের নয়। তিনি জানতেনই না, তাঁর সঙ্গে যাঁরা ঐ পার্টিতে আছেন তাঁদের কাছে মাদক আছে। পাশাপাশি তিনি বলেন আরবাজের থেকে মাত্র ২.৪ গ্রাম মাদক পাওয়া গেছে। একজন মাদকপাচারকারীর কাছে মাত্র ২.৪ গ্রাম মাদক থাকা কি যুক্তিযুক্ত? তিনি আরো বলেন, মাদক না থাকা সত্ত্বেও গ্রেফতার করা হয়েছে আরিয়ানকে এটা তার সংবিধান স্বীকৃত মৌলিক অধিকারের বিরোধী। এই সময় এনসিবির আইনজীবী হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট প্রসঙ্গ তুললে পাল্টা মুকুল রোহতগি বলেন, যে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে সেটি দু’ বছরেরও বেশি সময়ের পুরনো। এর বৈধতা কি?তাছাড়া এখানে কোথাও আরিয়ান বলেননি তিনি মাদক সেবন করেন সুতরাং বিষয়টির মধ্যে যথেষ্ট ধোঁয়াশা রয়েছে। মুকুল আরো বলেন, যদি কারোর থেকে খুব অল্প পরিমাণ মাদক উদ্ধার হয়েও থাকে তাহলে তাকে গ্রেপ্তারের বদলে রিহাব‍্যে এ পাঠানোটাই সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কেন্দ্রীয় সরকারও খাতায়-কলমে অন্তত তেমনটাই মনে করে। তাহলে এনসিবি কেন গ্রেফতারের পথে যাচ্ছে। দুপক্ষের সওয়াল জবাব শোনার পর বিচারপতি আরিয়ান সহ তিন জনেরই জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন। তবে কি কারনে তিনজনকে জামিন দেয়া হলো সেই বিষয়টি আদালত শুক্রবার জানাবে সে ক্ষেত্রে শুক্রবার আদালত তার স্পষ্ট করার পর খুব সম্ভবত শনিবার মুক্তি পেতে পারেন আরিয়ান সহ ৩ জন।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here