বাংলায় ভােট তাই
যুদ্ধের হিড়িক

0

Last Updated on January 27, 2021 9:35 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। তৃণমূলের নেতা, মন্ত্রী, বিধায়ক, সাংসদ দলে দলে ভাঙিয়ে বিধানসভা নির্বাচনে জিতে ক্ষমতায় আসার ব্যাপারে নিশ্চিত হতে পারছেনা ভাজপা। তাই অগতির গতি উগ্র হিন্দুত্বের ধুঁয়ো তোলার পাশাপাশি সীমান্তে যুদ্ধের বাতাবরণ তৈরি করে দেশজুড়ে দেশপ্রেমিক হুজুগ তুলতে মাঠে নামলো ভাজপা শিবির।
নরেন্দ্র মোদি দ্বিতীয়বার দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে স্বরাষ্ট্র থেকে প্রতিরক্ষা – বিভিন্ন বিষয়ে কার্যত দেশের ডি ফ্যাক্টো স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়ে ওঠা ভাজপা সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী আজ রীতিমতো নির্দিষ্ট করে বলে দিলেন, আগামী মার্চ মার্চ থেকে মে মাসের মধ্যে চীন সীমান্তে বেজে উঠবে যুদ্ধের দামামা। আশ্চর্যজনকভাবে ঠিক ওই সময় দেশের পূর্ব প্রান্তের বাংলায় রয়েছে বিধানসভা নির্বাচন। শুধুমাত্র বাংলা নয় চীন সীমান্তের অপেক্ষাকৃত নিকটবর্তী উত্তর-পূর্ব ভারতের অসমেও রয়েছে বিধানসভা নির্বাচন। সুব্রহ্মণ্যম স্বামী আজ টুইট করে দাবি করেন, প্রজাতন্ত্র দিবসের দিল্লির আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি যেভাবে ভেঙে পড়েছে, তা দেখেউৎসাহিত হয়ে আগামী মার্চ থেকে মে মাসের মধ্যে ভারতে বড়োসড়ো আক্রমণ করার প্রস্তুতি নিয়েছে চিন। ভারতের হিন্দুরা সংকটে। ‌ জেগে ওঠো হিন্দুরা।
অবশ্য মোদী জমানায় যখনই দেশের গুরুত্বপূর্ণ কোনো নির্বাচন হয়েছে, তখনই কখনো পাকিস্তান আবার কখনোবা চীন সীমান্তে যুদ্ধের দামামা বাজিয়ে দেশজুড়ে দেশপ্রেমের জিগির তুলে ভোটে জেতার অব্যর্থ পথ বেছে নিয়েছে ভাজপা। ঠিক যেমন লোকসভা নির্বাচনের আগে অথবা মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনের আগে ছায়া যুদ্ধের প্রচার করে উত্তেজনা তৈরি করার অভিযোগ ওঠে পাকিস্তান সীমান্তে, এবারেও বাংলা এবং অসমের নির্বাচনকে সামনে রেখে পূর্ব ভারতের চীন সীমান্তে ভাজপা নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার যুদ্ধের উত্তেজনা তৈরি করতে চাইছে বলে আগাম আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন দেশের বহু বিরোধী রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here