ভবানীপুরে দাপাদাপি হাল্লার রাজার দলের, ভারতের ইতিহাসে বেনোজির, ১৫০০ ভোট কর্মী অথচ ৩৫০০ কেন্দ্রীয় বাহিনী

0

Last Updated on September 30, 2021 8:33 PM by Khabar365Din

- Advertisement -

রিপোর্ট: শুভায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়, ইন্দ্রনীল সাহা

ছবি: অভীক দাস, কুণাল মালিক


৩৬৫দিন। হাল্লা চলেছে যুদ্ধে ! যুদ্ধটা মমতার বিরুদ্ধে অসম্ভব জেনেও যে করে হোক মমতাকে হারাতে হবে। এ যেন ভোট নয়, ভবানীপুরে মমতার বিরুদ্ধে হাল্লার সেনাদের যুদ্ধ। ভবানীপুর উপনির্বাচনের চেহারাটা অনেকটা সত্যজিত রায়ের গুপি গাইন বাঘা বাইন সিনেমার মতোই। একদিকে, শান্তিপ্রিয় শুন্ডির রাজা অন‍্যদিকে, প্রজা বিরোধী অশান্তি সৃষ্টি করি যুদ্ধবাজ রাজার দাপাদাপি। বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই ভবানীপুরে মমতার বিরুদ্ধে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ৩৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। অর্থাৎ প্রায় ৩৫০০ কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান মোতায়েন রয়েছে। ভবানীপুরে বুথ রয়েছে মোট ২৮৭টি। আর প্রতি বুথে ভোট কর্মী প্রায় ৫ থেকে ৬ জন অর্থাৎ মোট ভোট কর্মীর সংখ‍্যা দেড় হাজারের বেশি নয়। সেখানে ভোট কর্মীর তুলনায় প্রায় ৩ গুন কেন্দ্রীয় বাহিনী নামানো হয়েছে যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত হওয়া ভবানীপুরে। কারনটা হল ভোটারদের উপর মনস্তাত্ত্বিক চাপ সৃষ্টি করা তাদের ভয় দেখানো পরোক্ষে প্রভাব সৃষ্টি করা মোদ্দা কথায় বলতে গেলে মমতাকে হারাতে নখ দাঁত বের করে ময়দানে নেমে পড়েছে যাবতীয় অপশক্তি। অনেকের প্রশ্ন তুলছেন ভবানীপুরে ভোটে অশান্তির নজির নেই। তাহলে কেন ভোট কর্মী তুলনায় প্রায় তিনগুণ কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করতে হচ্ছে? বিধানসভার ভোটে ভরাডুবির পর এখন ভাজপার একমাত্র টার্গেটে ভবানীপুর উপনির্বাচন। সেই মতো ভবানীপুরে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিয়েছে ভাজপার বি টিম নির্বাচন কমিশনও । আজ ভবানীপুর,সামশেরগঞ্জ ও জঙ্গিপুরে উপনির্বাচনের জন্য মোট ৭২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছিল । তার মধ্যে শুধু মাত্র ভবানীপুর কেন্দ্রেই রয়েছে ৩৫ কোম্পানি বাহিনী। তৃণমূলের অভিযোগ,২৮৭টি বুথের জন্য প্রায় ৩ হাজারের ওপর জওয়ান নিয়ে আসার হয়েছে, শুধুমাত্র ভোটারদের ভয় দেখনোর জন্য। যাতে সাধারণ মানুষ ভোট না দিতে না পারে।দুপুর ১ টা পর্যন্ত ভবানীপুরে ভোট পড়েছে ৩৫.৯৭ শতাংশ, সামশেরগঞ্জ ভোট পড়েছে ৫৭.১৫ শতাংশ ও জঙ্গিপুরে ৫৩.৭৮ শতাংশ। এদিকে দুপুর সাড়ে তিনটে নাগাদ মিত্র ইনস্টিটিউশন স্কুলে ভোট দেবেন মমতা।

ভাজপা প্রার্থীর অশান্তি পাকানোর ছক

প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালের বিরুদ্ধে ভোটে অশান্তি পাকানোর অভিযোগ করল তৃণমূল।তৃণমূলের দাবি, বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল ভবানীপুরের বিভিন্ন কেন্দ্রে প্রচুর লোকজন নিয়ে বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে অশান্তি পাকিয়ে স্বাভাবিক ভোটদান প্রক্রিয়াকে নষ্ট করছে।নির্বাচন কমিশনের নির্দিষ্ট নিয়ম লঙ্ঘন করে প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল বিশাল গাড়ির কনভয় নিয়ে ভবানীপুর ঢুকলে এলাকার সাধারণ মানুষ তাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায়। বহিরাগতদের নিয়ে কেন এলাকার মধ্যে ঘুরছেন তিনি তা জানতে চায় ভবানীপুরের বাসিন্দারা। এদিন সকাল ১২ টা নাগাদ ভবানীপুরের দেবেন্দ্র ঘোষ রোডের বুথের সামনে প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল গাড়ি নিয়ে ভিড় জমায় । ক্ষুব্ধ হয়ে যান ভোটাররা। নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়েন তিনি। যদিও শেষ পর্যন্ত ওই এলাকা ছেড়ে বেরিয়ে যেতে বাধ্য হন তিনি। গোটা ঘটনায় প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালের বিরুদ্ধে কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেছে রাজ্যের শাসক দল। তৃণমূলের দাবি সর্বশক্তি প্রয়োগ করেও মমতাকে ভবানীপুরে হারাতে পারবেন না বুঝে গিয়েই অযথা অশান্তি পাকাচ্ছেন ভাজপা প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা তবে সাধারণ মানুষই ওকে প্রতিহত করছেন এবং পরাজয় নিশ্চিত বুঝে গিয়ে উনিও রণেভঙ্গ দিচ্ছেন।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here