দিল্লিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে মমতা নন্দীগ্রামে প্রার্থী

0

Last Updated on January 18, 2021 8:24 PM by Khabar365Din

মঞ্চে মুখমন্ত্রীর পাশে ফিরােজা বিবি, অখিল গিরি, সৌমেন মহাপাত্র, মানস ভুইয়া, দোলা সেন ও অন্যান্য নেতানেত্রীরা।

নন্দীগ্রাম থেকে সৌগত মণ্ডল ছবি অমিত বন্দ্যোপাধ্যায়

- Advertisement -

শুধু বাংলা নয় সারা ভারতের কৃষক আন্দোলনের ধাত্রী ভূমি নন্দীগ্রাম। কেন্দ্রের ভাজপা সরকারের কৃষক বিরোধী কৃষি আইন এর বিরুদ্ধে গোটা দেশজুড়ে কৃষক বিদ্রোহ চলছে সেই সময় কৃষকদের অধিকার রক্ষার লড়াইয়ে পথপ্রদর্শক নন্দীগ্রামের মাটিতে দাঁড়িয়ে মমতা ঘোষণা করলেন আগামী বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম থেকে লড়াই করবেন তিনি। রাজ্যের ২৯৪ বিধানসভা আসনের দায়িত্ব সামলানোর পাশাপাশি নন্দীগ্রাম থেকে নিজে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা করে একদিকে যেমন কৃষকদের অধিকার রক্ষার লড়াইয়ে নন্দীগ্রামকে স্বীকৃতি দিতে এবং কেন্দ্রের ভাজপা সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনরত কৃষকদের পাশে দাঁড়াতে মমতার এই মাস্টার স্ট্রোক।
আজ নন্দীগ্রামের তেখালি মাঠে প্রায় তিন লক্ষেরও বেশি মানুষের জনসমুদ্রের সামনে মমতা দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীকে বলেন, বক্সীকে বলব আমার নাম রাখতে। হয়তো বেশি সময় দিতে পারব না, তবে আপনাদের সব কাজ করে দেব। কৃষি আইন প্রত্যাহার না করলে সিঙ্গুর-নন্দীগ্রামের মতো করে দেখাব। আমি কারও কাছে জ্ঞান নেব না, নন্দীগ্রাম আন্দোলন কে করেছে আর কারা করেছে। নন্দীগ্রাম আন্দোলন তৈরি হয়েছিল সিঙ্গুর থেকে। আমি তখন রাস্তায় বসে অনশন করছি। অনেকে বড় বড় কথা বলে কিন্তু আন্দোলন তৈরি হয় সিঙ্গুর থেকে। আমার আন্দোলনের ফলে কেন্দ্রীয় সরকার বাধ্য হয়েছিল বলতে, কৃষিজমি জোর করে দখল করা যাবে না, আমি আইনটাকে বদলে দিয়েছিলাম।
অন্যদিকে তৃণমূল ছেড়ে কিছু কিছু নেতার অন্য দলে যোগদান প্রসঙ্গে মমতার বক্তব্য, কেউ কেউ একটু ইধার উধার করছে। আগে তো সুপ্রকাশ গিরিকে লড়, তারপর তৃণমূল কংগ্রেসকে লড়বে। কেউ কেউ যেতেই পার, স্বাধীনতা। রাজনীতিতে তিন ধরনের লোক হয়, একদল লোভী, একদল ভোগী, আর একদল ত্যাগী। যারা ত্যাগ করতে জানে তারা কোথাও যাবে না। আর একদলের প্রচুর সম্পত্তি, প্রচুর টাকা। সেই টাকা রক্ষা করতে তারা দল ছাড়ছে। বিজেপি নেতারা বলছে, হয় জেলে নয় ঘরে। তৃণমূল করলে জেলে ভরব, বিজেপি ওয়াশিং মেশিন। কালো হয়ে ঢুকবে, সাদা হয়ে বেরিয়ে আসবে।
নন্দীগ্রাম সংঘর্ষে ১০ জন নিখোঁজের পরিবারকে সরকারি অনুদান দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। পরিবার পিছু তুলে দেওয়া হল ৪ লক্ষ টাকার চেক।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here