ঝাড়গ্রামে মমতা,আদিবাসীদের অধিকার দাবিদাওয়া নিয়ে কেন্দ্র আইন তৈরি করুক

0

Last Updated on August 9, 2021 10:59 PM by Khabar365Din

অশোক কুমার মণ্ডল। ৩৬৫ দিন। ঝাড়গ্রাম। গত লোকসভা নির্বাচনে ঝাড়গ্রাম এবং পশ্চিম মেদিনীপুর শহর জঙ্গলমহলের প্রতিটি আসনে ভাজপার কাছে পরাজিত হলেও এবারের বিধানসভা নির্বাচনে জঙ্গলমহলের মানুষ আস্থা রেখেছেন মমতার ওপরেই। তৃতীয়বার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পরে আজ প্রথমবার ঝাড়গ্রাম সফরে গিয়ে সারা দেশে আদিবাসীদের অধিকার রক্ষার ডাক দিলেন মমতা। আজ বিশ্ব আদিবাসী দিবসের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে মমতার দাবি, আদিবাসীদের জমি হস্তান্তর করা যাবে না। আমাদের সরকার সেই আইন চালু করেছে। সারা দেশে আদিবাসীদের অধিকারে এই আইন চালু করা উচিত। আদিবাসীদের জন্য আলাদা দফতর তৈরি করা হয়েছে। ঝাড়গ্রামে বিশ্ব আদিবাসী দিবস উপলক্ষে উপস্থিত হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আদিবাসীদের সাবেকি পোশাক পরে তাঁদের সঙ্গে নাচের তালে পা মেলাতে দেখা যায় মুখ্যমন্ত্রীকে। আদিবাসী সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সম্মান জানান মুখ্যমন্ত্রী। আদিবাসীদের সঙ্গে ধামসাও বাজাতে দেখা যায় তাঁকে। ঝুমুরও তুলে নিয়েছিলেন হাতে। পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন এলাকার নবনির্বাচিত বিধায়ক তথা মন্ত্রী বীরবাহা হাঁসদা। এদিন আদিবাসী সংস্কৃতির সঙ্গে একাত্ম হয়ে এক অন্য মমতা ধরা দিলেন ঝাড়গ্রামে।

- Advertisement -

জঙ্গলমহলের উন্নয়ন প্রকল্প

আজ ঝাড়গ্রাম শহরের ঘোড়াধরা স্টেডিয়ামে আদিবাসী উন্নয়ন দপ্তরের উদ্যোগে বিশ্ব আদিবাসী দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানের মঞ্চ থেকে মমতা বলেন, মাওবাদী হানায় মৃতদের পরিবারকে চাকরি দিয়েছি। দুয়ারে সরকার আমরা বছরে ২ বার করব। দু-এক মাসেই দুয়ারে রেশন প্রকল্প চালু হয়ে যাবে। লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের সুবিধে মিলবে পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে। ঝাড়গ্রাম জেলায় ৯৫ শতাংশ মানুষ বিভিন্ন পরিষেবা পেয়েছেন। ঝাড়গ্রামে সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল তৈরি করেছি। ঝাড়গ্রামে স্পোর্টস কমপ্লেক্স তৈরি হয়েছে। ৩ কোটি মানুষ দুয়ারে সরকারের দ্বারস্থ হয়েছেন, বেশিরভাগই পরিষেবা পেয়েছেন। ঝাড়গ্রামে চারটি নতুন কলেজ তৈরি হচ্ছে। সাধুরাম চাঁদ বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি হচ্ছে। আদিবাসীদের জমি হস্তান্তর করা যাবে না, এই আইন তৈরি করেছে সরকার। সারা দেশেও এই আইন প্রণয়ন করা হোক। আদিবাসীদের জন্য আলাদা দফতর তৈরি করেছি। অলচিকি হরফে পড়ানোর জন্য ৫০০ টি স্কুল তৈরি হচ্ছে। জাহের থান এর পুরোহিত ও মাঝি বাবাদের মাসেএক হাজার করে ভাতা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। আদিবাসী সমাজের বয়স্ক মানুষদের ভাতা দেওয়ার কাজ চলছে। অন্য কোন রাজ্যে সাঁওতালি ভাষায় পড়াশোনা হয়নি। আদিবাসী সংস্কৃতি কে বাঁচিয়ে রাখার জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আমরা মানুষে মানুষে ধর্মে-ধর্মে ভাগ কারি না। আমরা সবাই এক। তিনি আরো বলেন যে আপনারা ভুল বুঝবেন না যদি কোন প্রয়োজন হয় আমাকে জানাবেন।

হাওড়ার বন্যা পরিদর্শন

আজ দুপুরে কলকাতা থেকে ঝাড়গ্রাম যাওয়ার সময় আকাশপথে পরিদর্শন করেন হাওড়ার উদয়নারায়ণপুরের প্লাবিত এলাকা। আগামীকাল ঘাটালে প্লাবিত এলাকা পরিদর্শনে যাবেন মুখ্যমন্ত্রী। ঝাড়গ্রামে পৌঁছে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা এখনও যায়নি, বাইরে বেরোলেই মাস্ক ব্যবহার করুন। ঝাড়গ্রাম আসার পথে বাগনান ও উদয়নারায়ণপুরের পরিস্থিতি দেখলাম। ভুল হলে শুধরে নেব, আপনারা কেউ ভুল বুঝবেন না।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here