গোয়ার ঝটিকা সফরে গিয়ে মমতা গ্যোমন্তক পার্টিকে সাফ জানালেন- গোয়ায় জোট নয়, তৃণমূল একাই লড়বে

0

Last Updated on October 29, 2021 10:19 PM by Khabar365Din

- Advertisement -

৩৬৫ দিন। সৌগত মণ্ডল। ডোনা পাওলা। গোয়া। ৪৮ ঘন্টাও কাটেনি নিজের প্রথম রাজনৈতিক সফরে গোয়াতে এসেছেন মমতা। তার মধ্যেই গোয়ার রাজনীতি আবর্তিত হতে শুরু করেছে মমতাকে কেন্দ্র করেই। বলিউড অভিনেত্রী তথা কংগ্রেস নেত্রী নাফিসা আলি থেকে শুরু করে গোয়ায় গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতার লড়াইয়ে মমতার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন লিয়েন্ডার পেজ। তবে রাজনীতির আঙিনাতেও মমতার সঙ্গে জুটি বেঁধে ভাজপা বিরোধী লড়াইয়ে শরিক হতে তাঁর ছোট্ট গেস্ট হাউসে ছুটে এসেছেন গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা ভারতীয় ফুটবলের অন্যতম ব্যারণ হিসেবে পরিচিত আলেমাও চার্চিল। গোয়া বিধানসভা নির্বাচনের আগে এখনো বাকি রয়েছে প্রায় মাস চারেক। তার আগেই গোয়ার রাজনীতি আবর্তিত হচ্ছে মমতাকে কেন্দ্র করে। স্বাভাবিকভাবে গোয়াতে তৃণমূলের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে আত্মবিশ্বাসী মমতা মূলত গোয়াতে নিজের ক্ষমতাতেই লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। ৪০ বিধানসভা কেন্দ্রেই তৃণমূল প্রার্থী দেবে।

ছবি: আই প্যাক, সিএমও’র সৌজন্যে

কংগ্রেসের উপরের আস্থা নেই

কংগ্রেস সম্পর্কে তিনি বলেন, সাত বছর ধরে শুধুই লড়তে নেমে হারছে কংগ্রেস। গতবার তো কংগ্রেসের বিধায়ক বিজেপিতে যোগ দিয়েছে। বিধায়কদের উপর কংগ্রেসের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। কীভাবে কংগ্রেসকে বিশ্বাস করা যায়? তৃণমূল অন্তত এমনটা করবে না। আগামী বছরের শুরুতে গোয়া সহ পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে তাদের যাবতীয় প্রথা ভেঙে গোটা দেশের রাজনৈতিক উৎসাহের এপিসেন্টারে পরিণত হয়েছে গোয়া তথা মমতা। গোয়া এখনো নির্বাচন ঘোষিত না হলেও তৃণমূলের কোন প্রার্থী ঘোষণা না করলেও গোয়ার একের পর এক প্রভাবশালী রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্ব ছুটে আসছেন একবার মমতার সঙ্গে হাত মেলানোর উদ্দেশ্যে। গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আলেমাও চার্চিল থেকে শুরু করে এই রাজ্যের ভূতপূর্ব শাসকদল মহারাষ্ট্র গ্যোমন্তক পার্টির শীর্ষ নেতৃত্ব ছুটে গেলেন মমতার সঙ্গে দেখা করতে এবং বিধানসভা নির্বাচনে আসন সমঝোতা প্রস্তাব নিয়ে। কিন্তু মমতা যেখানে নিজের একমাত্র টার্গেট ধরে রেখেছেন আগামী ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে গোটা দেশ থেকে ভাজপাকে হারানোর জন্য, সেখানে ছোট ছোট রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আসন সমঝোতা করে ভাজপার হাত শক্ত করার প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করছেন না। মহারাষ্ট্র গ্যোমন্তক পার্টির সুপ্রিমো সুধীন ধাওলেকার তাঁর দলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে মমতার সঙ্গে দেখা করে আসন সমঝোতার প্রস্তাব দিলেও তা নাকি মমতা প্রত্যাখ্যান করেছেন বলে জানালেন সুধীন। এরপরে মমতার সঙ্গে দেখা করতে আসেন গোয়ায় বর্তমান ভাজপা সরকারের প্রাক্তন তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী তথা প্রয়াত মনোহর পারিক্বরের ঘনিষ্ঠ রোহন কাউন্তে। রোহন মমতার নেতৃত্বে গোয়ায় ভাজপা সরকারকে হারানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

টিএমসি – টেম্পল মস্ক চার্চ

গোয়া থেকে বাংলার মমতা বলেন, টিএমসি আর এখন শুধু তৃণমূল কংগ্রেস নয়। টিএমসি’র অর্থ হল টেম্পল–মস্ক–চার্চ। অর্থাৎ মন্দির, মসজিদ এবং গির্জার মেলবন্ধনই হল টিএমসি। এই ভাষাতেই ভারতের সম্প্রীতি, ধর্মীয় ঐক্যের বার্তা দিলেন তিনি। সঙ্গে তাঁর আর্জি, তৃণমূল মরে যাবে কিন্তু আপস করবে না। তৃণমূলকে একটা সুযোগ দিন। আমরা নতুন সকাল আনব।

গোয়ার বুদ্ধিজীবী সম্প্রদায়ের সঙ্গে বৈঠক

গোয়াতে ও গত পাঁচ বছরের ভাজপা শাসনের অতিষ্ঠ হয়ে এবং সাংস্কৃতিক জগতের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের ওপর যেভাবে ভাজপা নানা ধর্মীয় ফতোয়া জারি করার পাশাপাশি গোয়ার সংস্কৃতি বিপন্ন করে তুলেছে তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে গোয়ার সংস্কৃতি ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে দেখা করতে এলেন বিভিন্ন ক্ষেত্রে বুদ্ধিজীবীরা। যাদের বুদ্ধিজীবী কথাটির মধ্যে আটকে না রেখে সিভিল সোসাইটির সদস্য বললে যথার্থ হবে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here