রাজ্য থেকে আলাপন অপসারণের কেন্দ্রীয় চেষ্টা কংগ্রেসের মতে,বাংলায় ৩৫৬ করার অশুভ ইঙ্গিত

0
1169

৩৬৫ দিন। বিপুল জনাদেশ নিয়ে আসা বাংলার সরকারকে যেনতেন প্রকারে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করতে একটানা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কেন্দ্রের ভাজপা সরকার। কখনও কেন্দ্রীয় এজেন্সি দিয়ে মন্ত্রী বিধায়কদের গ্রেফতারর করা, সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে কখনও রাজ্যপালকে দিয়ে বাংলায় ৩৫৬ ধারা বলবৎ করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে, কখনও আবার কোভিড মহামারী ঘূর্ণিঝড় পরিস্থিতির মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোকে ধ্বংস করে বাংলার মুখ্যসচিবকে দিল্লিতে কাজে যোগ দিতে বলা হচ্ছে, ভোটে ভাজপা উৎপাত হওয়ার পরেই বাংলার বিরুদ্ধে প্রতিহিংসামূলক আচরণে নেমেছে দিল্লির সরকার, এভাবেই কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনায় সরব হয়েছে কংগ্রেস সহ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি।

শনিবার কংগ্রেসের রাজ্যসভার সদস্য আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি, সাধারণ সম্পাদক রণদীপ সিং সূর্যওয়ালা বাংলার পাশে দাঁড়িয়ে একযোগে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনা করেছেন। কেন্দ্রীয় সরকার যে অগণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে বাংলার মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘রি কল’ করেছে তার তীব্র বিরোধিতা করা হয়েছে কংগ্রেসের তরফে। মুখ্যসচিবের পদে থাকা আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিন মাসের মেয়াদ বৃদ্ধির যে আবেদন রাজ্যের তরফে কেন্দ্রের কাছে করা হয়েছিল তাতে সম্মতি দিয়েছিল দিল্লি, কিন্তু তারপরেই মুখ্যসচিবকে আগামী 31 মে সকাল দশটায় কর্মী বর্গ ও প্রশিক্ষণ মন্ত্রকে রিপোর্ট করতে বলা হয়েছে, সূর্যওয়ালার মত যা বিজেপি সরকারের অগণতান্ত্রিক পদক্ষেপ এবং সম্পূর্ণ আইন বিরোধী। ‌ আইপিএস বা আইএএস অফিসারদের সঙ্গে কেন্দ্র যে রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক আচরণ করছে তার উদাহরণ ভারতবর্ষে পাওয়া যায় না এবং এটি অত্যন্ত নিন্দাজনক বলে মত কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদকের। কেন্দ্রীয় সরকারের এই আচরণের ফলে সাধারণমানুষ-এর সংবিধানের থেকে আস্থা উঠে যাবে। এই পরিপেক্ষিতে বাংলার শাসকদল তৃণমূলের পাশে দাঁড়িয়ে ‌দেশের সংবিধান বিশেষজ্ঞদের, সাধারণ মানুষকে একজোট হয়ে কেন্দ্রের ভাজপা সরকারের বিরুদ্ধে সরব হওয়ার ডাক দিয়েছে কংগ্রেস।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here