আলিমুদ্দিনের ক্ষুধিত পাষাণে মলম ভাইয়ের বুক চাপড়ে আর্তনাদ সিবিআই তদন্ত চাই, ২ ওয়ার্ডে জিতেছি তাও সরকার গড়তে দিল না

0

Last Updated on April 16, 2022 11:02 PM by Khabar365Din

- Advertisement -

কথাকলি দত্ত


আজ ক্ষুধিত পাষাণে রাজ্য সম্পাদক মলম ভাই যা যা বলিয়াছেন, তার একটি সংক্ষিপ্ত ভাবসম্প্রসারণ পাঠকের স্বার্থে প্রকাশিত হইল। রসিক পাঠক মর্মার্থ করিতে সক্ষম হইবেন আশা করি।

১.
ভাইসব, ভাইজানসব আজ আমাদের এই ভোট, তোমাদের কল্যাণে ভোট, তোমাদের সমর্থনে ভোট, তোমাদের আশীর্বাদে ভোট, তোমাদের পুজোয় ভোট, তোমাদের দোয়ায় ভোট, তোমাদের প্রেয়ারে ভোট, এই ভোটের সব কৃতিত্ব তোমাদের। আমরা মার্কসবাদ থেকে আগেই মার্কস বাদ দিয়ে গঙ্গায় ফেলে এসেছি। এবার কথা দিলাম আর কয়েক মাসের মধ্যে কমিউনিস্ট পার্টির নাম বদলে নাম দেব ভাইজানিস্ট পার্টি। বেশ ভাইজানও হল, আবার পুরোনো কমিউনিস্ট গন্ধটাও রইল। বামভাই লাল সেলাম। বামভাই সবুজ সেলাম। মার্কসবাদের ট্যাঙ্কে, কমিউনিস্ট পার্টির ট্যাঙ্কে, আমাদের কমরেডরা এখন সব টুম্পা সোনার দল আর আমাদের মাথার ওপর আর পলিটব্যুরো নেই, আর কেন্দ্রীয় কমিটি নেই, রাজ্য সম্পাদকমন্ডলী নেই, আছে শুধু ভাইজান আর বামভাই। কথা দিচ্ছি, আপনাদের ফুল সাপোট পেলে ভবিষ্যতে আমরা ফিফটি পার্সেন্ট বামরাম থাকব আর ফিফটি পার্সেন্ট বামভাই করে দেব। রামও রইল আবার ভাইও রইল। আমাদের কোনও কিছুতেই অ্যালার্জি নেই। আমরা হলাম আরশোলার জাত। গায়ে গরম জল না পড়া পর্যন্ত আমাদের ঠ্যাকায়া রাখ তে পারবা না। বল ভাই বামভাই কা জয়। বল সব বামভাই লাল সেলাম।

২.
কত বড় ষড়যন্ত্র একবার ভেবে দেখুন। আজ রাজ্যের একটি বিধানসভা কেন্দ্রের দুটি ওয়ার্ডে আমরা বিপুল ভোটে জিতেছি। ৬৪ নম্বর ওয়ার্ডে ১৫০ আর ৬৫ নম্বর ওয়ার্ডে ৩০০ ভোটে। সব মিলিয়ে বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে ভাইজানদের সহযোগিতায় ২০ থেকে ২৫ পার্সেন্ট ভোট ফেরত এনেছি। কুচক্রী তৃণমূলেরা বলছে, আসানসোলে যেহেতু আমরা কলা ছিঁড়েছি, ওখানে যেহেতু আবার সেই ৫ থেকে ৭ পার্সেন্ট, তাই আসলে কোনও ভাইজানরাই আমাদের সঙ্গে নেই। ওখানে আমাদের আবার জামানত বাজেয়াপ্ত। তাই আমাদের সরকার গড়তে দেওয়াটা ওরা ঠেকিয়ে দিল। কী না আসানসোলে সাড়ে ৩ লাখ জিতেছে।  তাতে কী হয়েছে শুনি। গত ১০ বছরে আমাদের ১০০ বার জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। আমাদের নেতা কমরেড ইয়েচুরি ভাই বলেছেন, কমিউনিস্ট পার্টিকে ভোটে হারতেই হবে। তাই আমরা ভোটে হারি। কিন্তু ভোটে হেরেছি বলে কি বালিগঞ্জে জিতিনি? বাম বলে আমাদের সঙ্গে কি শুধুই ভাইজান? আমরা বিশুদ্ধ বহুরূপী। ক্ষমতায় ফেরার জন্য আমাদের যা বলবেন তাই করব। আমরা সময়ে কংরেড, আমরা সময়ে বামরাম, আমরা সময়ে বামভাই, আমরা সময়ে টুম্পাসোনা, আমরা সময়ে রাজ্যপালের চা চক্রে, আমরা সময়ে সিবিআই-ইডিতে স্মারকলিপি, আমাদের ভিকাশ উকিল তো কোর্টে বসেই থাকে। চেষ্টার কোনও ত্রুটি করছি না বস। শেষ তিনটে ভোটে, বিধানসভা, লোকসভায় কোনও সিট নেই তো কি, বালিগঞ্জের দুটো ওয়ার্ডে তো জিতলাম। মরাল ভিকট্রি। এরপরেও আমাদের গর্ভমেন্ট করতে দিল না, কত বড় ষড়যন্ত্র একবার ভাবুন।

৩.
ভাইসব (দেখুন আমি একবারও কমরেড বলে ডাকিনি। পাগল, ওসব কমরেড ফমরেড বলে আর কেউ কেস ধ্যাড়ায়) ডোন্ট ওরি। এই কন্সপিরেসি আমরা ঠেকিয়ে দেব। আমরা দুটো ওয়ার্ডে জিতেছি, তার মানে আসলে আমরা ৪২টা লোকসভা কেন্দ্রে জিতেছি (অঙ্কের হিসেবে ২ +৪ = ৪২ আবার ২১x ২= ৪২। লসাগুর থিওরি। দেখুন ২ টা কমন)। আমরা দুটো ওয়ার্ডে জিতেছি, তার মানে আসলে আমরা ২৯৪টা বিধানসভাতেই জিতেছি (অঙ্কের হিসেবে ১৪৭×২ আবার সামনে ২ পেছনে ২+ ২)। আমাদের কি তৃণমূল গান্ডু ভাবছে? পড়াশুনো করিনি নাকি? সোমবারই আমরা কোর্টে মুভ করছি। সিবিআই সিবিআই চাই। ভিকাশ উকিল মুভ করবে, পেছনে প্রভাবশালীরা আছে। জিতিবাবার কোর্ট। সিবিআই চাইলেই পেয়ে যাব। দিল্লিতে কথা বলে নিচ্ছি। আর এদিকে রাজ্যপাল ধনার চা চক্রে কুজন আর বিধানদাদুকে পাঠাচ্ছি। এক্সপেকটেড, নেক্সট উইকে হোল তৃণমূল ক্যাবিনেট উইল বি অ্যারেস্টেট বাই সেন্ট্রাল এজেন্সি। এদিকে গভর্নর সরকার করতে ডাকছে। কাকে ডাকছে? আমায় ডাকছে। নইলে কি ওই সুজন স্যরি কুজনকে ডাকবে? সে গুড়ে বালি। ওসব আমি সেট করে রেখেছি। ভাইসব লাল সেলাম। ভাইজান লাল সেলাম। বাই মে নেক্সট বামভাই গর্ভমেন্ট। বাইরে থেকে সাপোর্ট দেবে রামভাইরা। ১১ বছর পরে আবার সরকারে ফিরছি। ওরে এবার মাজা বল।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here