দিল্লি হাইকোর্টের রায়
ইডি’র দাবি বাতিল, হাজিরা দিতে হবে না অভিষেক-পত্নী রুজিরাকে

0
271

৩৬৫ দিন। নয়াদিল্লি। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের বিরুদ্ধে দিল্লি হাইকোর্টে বড় জয় পেলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর স্ত্রী রুজিরা। কয়লা তদন্তের অজুহাতে বারে বারে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রীকে দিল্লিতে হাজিরা দেওয়ার জন্য ইডি বারে বারে নোটিশ পাঠানোর প্রেক্ষিতে দিল্লি হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী। আজ শুনানির পরে দিল্লি হাইকোর্ট জানিয়ে দিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের দায়ের করা মামলার প্রেক্ষিতে আগামীকাল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীকে সশরীরে পাতিয়ালা হাউস কোর্টে হাজিরা দিতে হবে না।
পাতিয়ালা হাউস কোর্টে ইডি মামলা দায়ের করে দাবি করেছিল, কয়লা তদন্তে বারবার জেরা এড়াচ্ছেন রুজিরা। সেই মামলায় রুজিরাকে আগামী ১২ অক্টোবর সশরীরে আদালতে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছিল পাতিয়ালা হাউস কোর্ট। গত ৬ অক্টোবর সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন রুজিরা। তাঁর বক্তব্য ছিল, আইন অনুযায়ী আউট অব স্টেশন থেকে কোনও মহিলাকে যদি তলব করতে হয় তাহলে তার আগে প্রয়োজনীয় তদন্ত করা আবশ্যক। বর্তমানে তিনি দিল্লির বাইরে থাকেন। তাই কোভিড পরিস্থিতিতে তাঁকে তলবের আগে এ নিয়ে তদন্তের প্রয়োজন। পাশাপাশি রুজিরা আরও জানান, এর আগে তাঁকে যে তলব করা হয়েছিলা তা তিনি অমান্য করেননি।

- Advertisement -

প্রত্যেকবারই তিনি ইমেল বা অন্য কোনও ভাবে যোগাযোগ করেছেন বা সমনের উত্তর দিয়েছেন। আজ মামলার শুনানিতে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা দিল্লি হাইকোর্টকে বলেন, রুজিরাকে আদালতে হাজিরা দিতেই হবে, এমন কোনও কথা তাঁরা বলছেন না ৷ তিনি চাইলে তাঁর কোনও প্রতিনিধি বা আইনজীবীকেও শুনানির দিন আদালতে পাঠাতে পারেন ৷ এরপরই আদালত জানিয়ে দেয়, দিল্লির আদালতে রুজিরার সশরীরে হাজির থাকার কোনও প্রয়োজন নেই৷ এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে আগামী ২৯ নভেম্বর৷ এর আগেও গত সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে কয়লা কাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রুজিরাকে দিল্লিতে ডেকে পাঠিয়েছিল ইডি। কিন্তু কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার কাছে চিঠি পাঠিয়ে করোনা আবহে তাঁর পক্ষে ২ সন্তানকে নিয়ে দিল্লিতে যাওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন রুজিরা। পাশাপাশি বাংলার একটি মামলায় দিল্লিতে জিজ্ঞাসাবাদের এক্তিয়ার তদন্তকারী সংস্থার নেই বলেও চিঠিতে উল্লেখ করেছিলেন তিনি। কিন্তু তার পরেও ইডি আধিকারিকেরা বারে বারে তাঁকে নোটিশ পাঠিয়ে দিল্লিতে ডেকে পাঠাতে থাকেন। রুজিরার আবেদনের ভিত্তিতে আজ দিল্লি হাইকোর্ট রায় দিতে গিয়ে জানিয়েছে, ইডির সমন অনুযায়ী সশরীরে রুজিরাকে পাতিয়ালা হাউস কোর্টে হাজিরা দিতে হবে না। তবে তিনি আইনজীবীর মাধ্যমে মামলার শুনানিতে হাজিরা দিতে পারবেন।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here