প্রত্যাশিত ছিলই, ফিরহাদ হাকিমই কলকাতার মেয়র, চেয়ারম্যান হলেন মালা রায়, ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ

0
192

প্রশান্ত চ্যাটার্জি, বিকাশ ভট্টাচার্য, সুব্রত মুখার্জি, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের থেকে অনেক দক্ষ, স্বচ্ছ, কমল বসুর পর কলকাতা পুরসভার সবচেয়ে সফল মেয়র

৩৬৫দিন। শুভায়ণ বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশাস্ত চ্যাটার্জি, বিকাশ ভট্টাচার্য, সুব্রত মুখার্জি, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের থেকে অনেক দক্ষ, স্বচ্ছ, কমল বসুর পর কলকাতা পুরসভার সবচেয়ে সফল মেয়র তাই প্রত্যাশিত ছিল ফিরহাদই। তাই কলকাতা পুরসভার মেয়র হিসেবে ফিরহাদ হাকিমকেই বেছে নিয়েছে তৃণমূল। বৃহস্পতিবার মহারাষ্ট্র নিবাসে তৃণমূলের দলীয় বৈঠকে খোদ মমতা ফিরহাদ হাকিম এর নাম পুরসভার দলনেতা হিসেবে প্রস্তাব করেন। ডেপুটি মেয়র হিসেবে প্রস্তাব করেন অতীন ঘোষ এর নাম। পাশাপাশি কলকাতা পুরসভার চেয়ারম্যান হিসেবে মালা রায়ের নাম প্রস্তাব করলে দলের তরফে সর্বসম্মতভাবে সম্মতি জানানো হয়। নবনির্বাচিত বোর্ডকে যত দ্রুত সম্ভব গঠন করার নির্দেশ দেন দলনেত্রী।অতীন ঘোষ ডেপুটি মেয়র পদে ছিলেন সেই পদেই থাকলেন। মানজার ইকবাল, সামসুর জাওয়ান আনসারী , ইন্দ্রানী সাহা ব্যানার্জি, রতন দে মেয়র পরিষদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল।যদিও রতন দে কে এবার প্রার্থী করেনি দল। দেবব্রত মজুমদার, দেবাশিস কুমার , তারক সিং, স্বপন সমাদ্দার , আমিরুদ্দিন ববি, রাম পেয়ারা রাম, অভিজিৎ মুখার্জি, বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায় এই ৮ জন আগের বারই মেয়র পরিষদ হিসেবে পদে ছিলেন এবং নতুন বোর্ডেও থাকলেন। নতুন বোর্ডে মেয়র পরিষদ হিসেবে এবার জায়গা পেলেন সন্দীপ বক্সী, সন্দীপন সাহা, জীবন সাহা ও মিতালী বন্দোপাধ্যায়।
১৬ টি বোরোর চেয়ারম্যানের মধ্যে ৯ জন মহিলাকে চেয়ারম্যান করা হয়েছে।১ নম্বর বোরো চেয়ারম্যান হলেন তরুণ সাহা। ২ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান করা হল শুক্লা ভোর কে। ৩ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান অনিন্দ্য কিশোর রাউত। ৪ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান সাধনা বোস। রেহানা খাতুন ৫ নম্বর বোরো চেয়ারম্যান। ৬ নম্বর বোরো চেয়ারম্যান করা হচ্ছে সানা আহমেদকে। ৭ নম্বর বড় চেয়ারম্যান করা হয়েছে সুস্মিতা ভট্টাচার্যকে। ৮ নম্বর বোরো চেয়ারম্যান হয়েছেন চৈতালী চট্টোপাধ্যায়।৯ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান দেবলীনা। ১০ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান করা হয়েছে জুই বিশ্বাসকে।১১ নম্বর বোরো চেয়ারম্যান হয়েছেন তারকেশ্বর চক্রবর্তী। ১২ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান সুশান্ত ঘোষ। ১৩ নম্বরের চেয়ারম্যান রত্না সুর। ১৪ নম্বরের চেয়ারম্যান সঞ্চিতা দাস, ১৫ নম্বর বড় চেয়ারম্যান রঞ্জিত শীল ও সুদীপ পোলে ১৬ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান । পাশাপাশি এদিন মমতা ১৩৪ জন কাউন্সিলরকে জয়ের জন্য শুভেচ্ছা দিয়ে আগামী রবিবারের মধ্যে ভোটের সময় লাগানো সকল হোডিং পোস্টার খুলে ফেলার নির্দেশ দেন।


Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here