মোর্চার হুঁশিয়ারি, টয়ট্রেন বেচলে বড় আন্দোলন হবে

0
304

৩৬৫ দিন। কেন্দ্রের মোদি সরকারের টয়ট্রেন বেচে দেওয়ার সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা জানালো গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা নেতা রোশন গিরি বুধবার এ প্রসঙ্গে বলেন, কেন্দ্র টয়ট্রেন বেচে দিতে চাইছে দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে কে বেসরকারিকরণ করছে আমরা মোদি সরকারের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করছি কোন অবস্থাতেই কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্ত আমরা মানছি না কেন্দ্রের কাছে দাবি জানাবো সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার। তা না হলে আগামী দিনে কেন্দ্রে ভাজপা সরকারের বিরুদ্ধে বৃহর আন্দোলনের পথে যাওয়া হবে। আরো এক গোর্খা নেতা কেশব রাজ পোখরেল বলেন, ভাজপা শুধু দেশের সম্পদ বেচে দিতে জানে। টয় ট্রেন দার্জিলিংয়ের ঐতিহ্য অত্যন্ত গর্বের জায়গা পাহাড়ের মানুষের সেন্টিমেন্ট জড়িয়ে রয়েছে এই টয় ট্রেনের সঙ্গে। দার্জিলিঙে পর্যটনের বিকাশের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রয়েছে এই টয়ট্রেনের আর তাকেই মোদি সরকার বেসরকারিকরণ করছে বেচে দিতে চাইছে টয়ট্রেনের অবস্থা রঙ্গীত চা বাগানের মত করতে চাইছে কোন অবস্থাতেই কেন্দ্রের এই ষড়যন্ত্রকে মেনে নেওয়া হবে না প্রয়োজনে বৃহত্তর আন্দোলন হবে একইসঙ্গে তিনি উল্লেখ করেন দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে সংলগ্ন এলাকায় বহু মানুষের বাস টয়ট্রেন বেসরকারীকরণ এর মাধ্যমে এই সমস্ত মানুষদের উচ্ছেদ করতে চাইছে মোদি সরকার পাহাড়ের সঙ্গে ষড়যন্ত্র চলছে কোনো অবস্থাতেই এই চক্রান্ত বরদাস্ত নয় আমরা বেসরকারিকরণের তীব্র বিরোধী। যদিও দার্জিলিং এর বিধায়ক নিরজ জিম্বার সাফাই, কেন্দ্রীয় সরকার কি সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা আমি বিস্তারিত জানিনা তবে আমার মনে হয় টয় ট্রেন বেসরকারিকরণ বলে আখেরে উন্নতি হবে। ভেবে-চিন্তে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

- Advertisement -

পুজোর আগে জঙ্গল সাফারি, ইভনিং রাইড

টানা দেড় বছর পর সমতল থেকে পাহাড়ি পথে পুনরায় ছুটতে শুরু করলো ঐতিহাসিক টয় ট্রেন। ত্রিশ বছর আগের পার্সেল কোচ ফের যুক্ত করে খেলনা গাড়ির খুইয়ে যাওয়া পালক ফেরালো দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে। তবে খশির হাওয়ার মাঝে অনিশ্চয়তায় ভুগছে ডিএইচআর কর্মীরা। পাশাপাশি পর্যটক টানতে এবারে অত্যাধুনিক ডাইনিং ভিস্তা ডোম কোচ নিয়ে টয়ট্রেনে চেপে জঙ্গল সাফারির ইভিনিং রাইডের সংযোজন করছে রেল। যদিও এর আগেও রেলের তরফে শিলিগুড়ি টাউন স্টেশন থেকে টয়ট্রেনের ইভনিং রাইড চালু করা হয় তবে উদ্বোধনের পরই অনির্দিষ্টকারনে বন্ধ হয়ে যায় তা। এদিকে কোভিড ও পাহাড় ধসের কারনে দীর্ঘ দিন বন্ধ ছিল নিউজলপাইগুড়ি থেকে দার্জিলিং ঘুম স্টেশন পর্যন্ত খেলনা গাড়ির পরিষেবা। কোভিড সংক্রমনের গ্র্যাফ নিম্নমুখী হতেই আগস্ট মাসে দার্জিলিংয়ে জয় রাইড শুরু করা হয়। এরপর দ্বিতীয় ঢেউ স্থিত হওয়ার পর বুধবার নিউজলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে দার্জিলিংপর্যন্ত টয়ট্রেন পরিষেবা পুনরায় চালু করা হলো। এদিন নিউজলপাগুড়ি স্টেশন থেকে উত্তরপূর্ব রেলের কার্টিহার ডিভিশনের ডিআরএম শুভেন্দু কুমার চৌধুরী সবুজ ঝান্ডা দেখিয়ে যাত্রার সূচনা করেন। যদিও প্রথম দিনে নিউজলপাইগুড়ি থেকে মাত্র দুজন যাত্রী নিয়ে শৈলশহরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় টয়ট্রেন। টুর অপারেটরদের একটি গোষ্টি এদিন চলন্ত টয়ট্রেনে রেলের আধিকারিকদের সঙ্গে পরিষেবা সংক্রান্ত জরুরি বৈঠক সারে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here