নখ, দাঁত, স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর জঙ্গলে ফিরল কুলতলির বাঘ

0

Last Updated on December 29, 2021 9:17 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। ২৪ ঘন্টা পর্যবেক্ষণে রাখার পর গভীর জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হল কুলতলির রয়‍্যাল বেঙ্গলকে। বুধবার ভোরে ঝড়খালি ব্যাঘ্র পুনর্বাসন কেন্দ্র থেকে লঞ্চে বাঘটিকে সুন্দরবনের রামগঙ্গা রেঞ্জের ধুলিভাসানিয়া ৪ জঙ্গলের কাছাকাছি নিয়ে আসা হয় তারপর খুলে দেওয়া হয় খাঁচা। ছাড়া পেয়েই নদীতে ঝাঁপ রয়্যাল বেঙ্গলের। প্রথমে কিছুটা দৌড়ে পরে ধীরে সুস্থে হেঁটে গভীর জঙ্গলে ফিরে যায় বাঘটি। বন দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, কুলতলির শেখপাড়ার জঙ্গল থেকে ধরা পড়া বাঘটিকে দুদিন ধরে লাগাতার পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। বাঘ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তাকে পরীক্ষা করে। বাঘটির পায়ে কিছুটা সমস্যা ছিল। তার চিকিৎসা করা হয়। মূলত পরীক্ষা করে দেখা হয় বাঘটি জঙ্গলে শিকার ধরতে সম্মত কিনা তার দাঁত এবং নখ পরীক্ষা করে দেখা হয়। বাঘটি স্বাভাবিকভাবেই খাওয়া দাওয়া করছিল।

- Advertisement -

এই সমস্ত রিপোর্ট ঠিকঠাক আসায় বাঘটিকে ফের জঙ্গলে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, কুলতলির বিভিন্ন জঙ্গলে দাপিয়ে বেড়িয়ে মঙ্গলবার সকালে ধরা পড়ে রয়‍্যালবেঙ্গল। ঘুম পাড়ানি গুলি ছুড়ে তাকে কাবু করা হয়। বনদফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, মূলত দুটি বিষয় নিয়ে চিন্তায় ছিলেন বন দফতরের আধিকারিকরা। প্রথমত, প্রায় ৬ দিন অভুক্ত থাকা বাঘ ঘুমপাড়ানি গুলির ধকল নিতে পারবে কিনা। কিন্তু এক্ষেত্রে বাঘকে বাগে আনার আর কোন উপায়ও ছিল না। তাই এই উপায় নিতে হয়। সেক্ষেত্রে বাঘটিকে উদ্ধারের পর তার চিকিৎসার জন‍্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের প্রস্তুত রাখা হয়েছিল। দ্বিতীয় চিন্তার বিষয় ছিল বাঘটিকে ফের জঙ্গলে ফেরানো সম্ভব হবে কিনা! যদি তার বড় ধরনের কোন চোট-আঘাত থাকতো বা বাঘ শিকার ধরতে অক্ষম হতো তাহলে তাকে আর জঙ্গলে ফেরানো সম্ভব হতো না সে ক্ষেত্রে পুনর্বাসনকেন্দ্রে ঠাঁই হত তার। শেষ পর্যন্ত বাঘটিকে সুস্থ অবস্থায় জঙ্গলে ফেরানো সম্ভব হয়েছে। স্বস্তিতে বনদপ্তরের আধিকারিকরা।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here