মোদির সঙ্গে মতান্তর নাকি জঙ্গি হানার ভয়? ভারত ছেড়ে পাকাপাকিভাবে লন্ডনে ৩০০ একরের প্রাসাদে চলে যাচ্ছেন মুকেশ আম্বানি

0

Last Updated on November 5, 2021 11:43 PM by Khabar365Din

৩৬৫দিন।বিশেষ প্রতিবেদন। লন্ডন। ভারতকে টা-টা আম্বানিদের। ২০২২ এ লন্ডন পাড়ি দিচ্ছে আম্বানি ফ‍্যামিলি। কিন্তু আচমকা দেশ ছেড়ে কেন বিদেশে পাকাপাকিভাবে চলে যাচ্ছেন সিনিয়র আম্বানিরা ? নেপথ্যে কি কোন রহস্য নাকি নিছক পারিবারিক সিদ্ধান্ত? উঠে আসছে নানান বক্তব‍্য। বছর দুয়েক আগে উইকিলিকস এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ বেশ কয়েকটি দেশের গোয়েন্দা রিপোর্ট দাবি করে বিশ্বের অন্যতম ধনকুবের মুকেশ আম্বানি এবং তার পরিবার ভারতে মোটেই নিরাপদ নয়। যেকোনো মুহূর্তে তাদের ওপর হামলা হতে পারে। মোদি সরকার অবশ্য বিষয়টিকে তেমন গুরুত্ব দেয়নি কিন্তু এরপরই দেখা যায় অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণভাবে মুম্বাইয়ে মুকেশ আম্বানি পরিবারের বাসভবন অ্যান্টিলিয়া-র সামনে থেকে বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি উদ্ধার হয়। রহস্যজনক বিষয় হলো সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে গাড়ির চালক এবং আরোহীদের শনাক্ত করে মুম্বাই পুলিশ কিন্তু দু’জনকেই মৃত অবস্থায় ঘটনার দিন দুয়েক পর পাওয়া যায় অর্থাৎ সবমিলিয়ে গোটা ঘটনা যথেষ্ট সন্দেহজনক এবং রহস্যাবৃত। অনেকে আবার এমনও বলছেন, জুনিয়র আম্বানির সঙ্গে মোদি সরকারের সখ্যতা সর্বজনবিদিত। এভিয়েশন ইন্ডাস্ট্রিতে কোনও রকম অভিজ্ঞতা না থাকা সত্ত্বেও রাফাল এর বরাত পাওয়া থেকে সমরাস্ত্র তৈরি- অনিল আম্বানি বরাবরই মোদি সরকারের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ।

- Advertisement -

অনেকেই আশঙ্কা প্রকাশ করছেন অনিল আম্বানিকে বাড়তি সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার জন্যই ভয় দেখানো হয়ে থাকতে পারে মুকেশকে। তাই হতে পারে বাধ্য হয়ে তিনি দেশ ছাড়ছেন। তারা হয়তো মনে করছেন ভারতে থাকলে তাদের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে তাই দেশ ছেড়ে লন্ডন পালাচ্ছেন। যদিও প্রকাশ্যে আম্বানি পরিবার এই দিয়ে মুখ না খুললেও দেশ ছাড়ার যে অজুহাত অন্তত প্রকাশ্যে ভাসিয়ে দেওয়া হচ্ছে সেটি হল প্যান্ডেমিক পরিস্থিতিতে মুম্বইয়ের বাড়িতে একপ্রকার ঘরবন্দী ছিল আম্বানি পরিবার। সেই সময়ই নাকি সেকেন্ড হোমের অপশনের কথা মাথায় আসে রিলায়েন্স কোম্পানির কর্ণধার মুকেশ আম্বানির। অনেক খোঁজাখুঁজির পর লন্ডনের স্টক পার্ক এড়িয়ায় খোলামেলা জায়গায় ৩০০ একর জমির ওপর তৈরি হয়েছে আম্বানির নেক্সট হোম। লন্ডনে যে বিলাসবহুল ম্যানসনে গোটা পরিবারকে নিয়ে মুকেশ আম্বানি জীবনের ‘নতুন অধ্যায়’ শুরু করতে চলেছেন সেটি আক্ষরিক অর্থেই রাজপ্রাসাদ। ম‍্যানসনে রয়েছে ৪৯ টি বেডরুম। বাড়ির সঙ্গেই থাকছে আপদকালীন পরিস্থিতিতে ব‍্যবহারের জন‍্য মিনি হাসপাতাল। ৩০০ একর জায়গা নিয়ে বানানো হয়েছে এই বিলাস বহুল অট্টালিকা। ম‍্যানসন তৈরিতে খরচ হয়েছে ৫৯২ কোটি টাকা। আম্বানি পরিবার সূত্রের খবর সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২২ এর দিওয়ালি লন্ডনের ম‍্যানসনেই উদযাপন করবে আম্বানি পরিবার। লন্ডনে আম্বানি ফ্যামিলির নতুন ঠিকানাটি ১৯০৮ সালের পর প্রাইভেট রেসিডেন্ট হিসাবে ব্যবহার হত। এখন তা কান্ট্রি ক্লাব। সূত্রের খবর, জেমস বন্ডের সিনেমাতেও এই ম্যানসনটিকে দেখানো হয়েছিল।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here