কোভিডে বিশ্বের শিক্ষা মডেল, পরীক্ষা নয়, সবাই পাশ

0

Last Updated on July 27, 2021 3:41 PM by Khabar365Din

ড. সর্বজিৎ সরকার। লন্ডন

- Advertisement -

৩৬৫ দিন। মহামরিতে বিপর্যস্ত বিশ্বে স্বাস্থ্য ও অর্থনীতি বাদে তৃতীয় সমস্যাটি ছিল শিক্ষা। উন্নত বিশ্বে গত দু বছর ওলটপালট হয়ে যাওয়া পরিবেশে কিভাবে শিক্ষা ও তার মান বজায় থাকবে তা নিয়ে সবচেয়ে বেশি চিন্তিত ছিল। নরওয়ে, ফিনল্যান্ড, সুইডেনের মত দেশগুলো গত বছরের শুরুতেই তাদের আগামী দু বছরের শিক্ষা পরিকল্পনা গুছিয়ে নিয়েছিল। কিছু পরে হলেও ইউরোপের শিক্ষার দিক থেকে সেরা দেশগুলো যেমন ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মান, স্পেন, ইতালি ও নেদারল্যান্ডস এবং আমেরিকা সেই রাস্তাতেই হেঁটেছে। কোভিড প্যান্ডামিক এডুকেশন অবজারভেটরির মাধ্যমে লোকডাউনের প্রথম মাসেই তারা তিনটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলে। 
প্রথমত, প্রাথমিক শর্ত ছিল এডুকেশন ফ্রম হোম । দ্বিতীয় পরিকল্পনা ছিল, নো এক্সামিনেশন, এবং তৃতীয় লক্ষ্য ছিল শিক্ষার্থীদের এডুকেশন ইয়ার বা শিক্ষা বর্ষ যেন নষ্ট না হয়। এডুকেশন পলিসির খসড়ায় তারা এটা পরিষ্কার করে দিয়েছে যে, অর্থনীতির থেকেও গুরুত্বপূর্ণ স্বাস্থ্য এবং শিক্ষা। এ প্রসঙ্গে মার্কিন শিক্ষা দফতরের প্রধান বা স্টেট সেক্রেটারি অফ এডুকেশন মিগুয়েল কার্ডনা ঐতিহাসিক বিবৃতি দিয়ে বলেছিলেন, অর্থনীতি দুর্বল হলে তা মেরামত করার সুযোগ পাওয়া যাবে, কিন্তু দুটি শিক্ষাবর্ষ একজন শিক্ষার্থীর জীবন থেকে মুছে গেলে তা সারা জীবনেও মেরামত হবে না। এই সিদ্বান্ত নিয়েই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সব কটি স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরণের পরীক্ষা বাতিল হয়। কিন্তু ১০০ শতাংশ শিক্ষার্থীদের পাশ করানো হয়। তবে তাদের পূর্ববর্তী পরীক্ষার রেজাল্টের ভিত্তিতে গ্রেড দেওয়া হয়। কিন্তু অকৃতকার্য বলে কিছুই রাখা হয় না। কারণ পরীক্ষাই তো হয়নি, তাহলে অকৃতকার্য হওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই। 
১০০ শতাংশ শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন দেওয়া,পরীক্ষা বাতিল করা, এবং সবাইকে পাশ এই তিন শর্তে ইউরোপ ও আমেরিকা তাদের শিক্ষাকে প্যান্ডামিক অবস্থাতেও ধসে পড়তে দেয়নি। প্রাইমারি থেকে উচ্চশিক্ষা পর্যন্ত সর্বত্র একই ফর্মুলা। আমেরিকার সাউথ ক্যারোলিনা, টরেন্টো, ভার্জিনিয়া, ক্যালিফোর্নিয়া, বোস্টন সহ বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক শিক্ষার্থীরাও একই সুযোগ পেয়েছে,শুধু তাই নয়, তাদের স্কলারশিপ যেমন ছিল তেমনই তারা সুবিধা পাচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ফ্রি ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করে ১০০ শতাংশ স্টাফ ও শিক্ষার্থীদের প্রথমেই বিপদমুক্ত করা হয়েছে। একই পদ্ধতি ব্রিটেনে। বিশ্বখ্যাত অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় তাদের ৩০০ বছরের অর্থডক্স গোঁড়ামি ছেড়ে সব ধরণের প্রবেশিকা পরীক্ষা বাতিল করেই, আবেদনের ভিত্তিতে ভর্তি নিয়েছে। একই ভাবে বিশ্ববিখ্যাত এডিনবার্গ মেডিক্যাল কলেজ অনলাইন ভর্তির আবেদন নিয়ে ডাক্তারি পড়ার সুযোগ দিচ্ছে। যদিও মাত্র ৫০ শতাংশ ছাত্রদের জন্যই এই সুযোগ, কারণ আন্তর্জাতিক কোনও প্রবেশিকা পরীক্ষাই হয়নি। ফ্রান্সের সর্বর্ন বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনিভার্সিটি অফ প্যারিস, ইতালির মিলান বিশ্ববিদ্যালয় বিশেষ উদ্যোগ নিয়ে অনলাইনে আবেদনকারীদের ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করেছে,শুধু তাই নয় অন্য শহর থেকে পড়তে আসা শিক্ষার্থীদের সরকারি সেফ হোমে রেখে শিক্ষার ব্যবস্থা করেছে। জাপানে বিশেষ উদ্যোগে এর সঙ্গে নতুন শিক্ষাবর্ষের বই খাতা ও অন্যান্য সরঞ্জাম বাড়ি অবধি পৌঁছে দিচ্ছে শিক্ষা দফতর। অন্যদিকে ২০০৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত সুইডেনের মোট ৫৩ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ছয়টি বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর তালিকায় আছে। এর মধ্যে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের (স্টকহোম ইউনিভার্সিটি, উপসালা ইউনিভার্সিটি ও লুন্ড ইউনিভার্সিটি) সব ধরণের পরীক্ষা শুধু বাতিলই হয়নি, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশিকা পরীক্ষা ছাড়াই ভর্তি হয়েছে ছাত্ররা। বিশ্বের সেরা এই প্রতিষ্ঠান বিন্দুমাত্র ভাবিত নয়, বরং তাদের ভাবনা কিভাবে শিক্ষাথীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা করতে পারে। ১০০ শতাংশ পাশ, ও পরীক্ষা না নেওয়া গোটা বিশ্ব মেনে চলছে। 

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here