আলাপনকে হুমকি
গ্রেফতার ৩, মূল অভিযুক্ত ডা. অরিন্দম সেন, গ্রেফতার টাইপিস্ট ও গাড়ি চালক

0

Last Updated on November 9, 2021 8:34 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চিঠি দেওয়ার অভিযোগে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হল এক বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক সহ তিনজন। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনার পিছনে মূল অভিযুক্ত হল কেপিসি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক অরিন্দম সেন।পুলিশের জলে ধরা পড়েছে ওই হুমকি চিঠির টাইপিস্ট বিজয়কুমার কয়াল ও অরিন্দমের গাড়িচালক রমেশ সাউ। এই বিষয়ে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, পুলিশ তার কাজ করেছে।গত মাসের ২৬ তারিখ আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী তথা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোনালী চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে শরত বোস রোডের পোস্ট অফিস থেকে একটি চিঠি যায়। সেই চিঠিতে লেখা ছিল, আপনার স্বামীকে খুন করা হবে। কেউ তাঁকে বাঁচাতে পারবে না। চিঠির প্রেরক হিসেবে নাম ছিল গৌড় হরি মিশ্র।প্রযত্নে, রাজাবাজার সায়েন্স কলেজের কেমিক্যাল টেকনোলজি বিভাগের মহুয়া ঘোষ। এই চিঠি পাওয়ার পরই হেয়ার স্ট্রেট থানায় অভিযোগ দেয়ার করা হয়।ঘটনার তদন্তে নামে লালবাজার। তদন্তে নেমে পুলিশ টাইপিস্ট এর খোঁজ করতে শুরু করলে জানতে পারে ওই চিঠি টাইপ করে বিজয় কুমার কয়াল। সোমবার তাকে রাসবিহারী অ্যাভিনিউ থেকে পাকড়াও করার পর ঘটনার মূলচক্রি হিসেবে চিকিৎসক অরিন্দম সেন আর নাম উঠে আসে।

- Advertisement -

রাজা রামমোহন রায় সরনির বাসিন্দা অরিন্দমকে বেলেঘাটা থেকে গ্রেফতার করার পরই গোটা বিষয়টি পুলিশের কাছে স্পষ্ট হয়ে যায়। গ্রেফতার হয় চিকিসকের গাড়ির চালক রমেশ সাউ। পেশায় চিকিৎসক অরিন্দম সেন টাইপিস্ট বিজয় কুমারকে দিয়ে ওই হুমকি চিঠি টাইপ করিয়ে তার গাড়ির চালক রমেশকে দিয়ে ওই হুমকি চিঠি পৌঁছে দিয়েছিল। জানা গিয়েছে, এই প্রথম নয় এর আগেও গত দুবছরে একাধিক বিশিষ্ট ব্যক্তিতে হুমকি চিঠি পাঠিয়েছে অরিন্দম। কিন্তু প্রতিবারই পুলিশের নজর থেকে এড়িয়ে গেলেও এবার আর রেহাই মিলল না।যদিও এ প্রসঙ্গে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মত, গোটা দেশ জুড়ে একটা ঘৃণা ও অবিশ্বাসের পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে। তার ফলেই কিছু লোকের মধ্যে মনোবিকারজনিত হিংসার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে।পুলিশ সূত্রে খবর, অপরাধের কথা স্বীকার করলেও কেন আলাপন বন্দোপাধ্যায়কে প্রাণনাশের ওই হুমকি চিঠি পাঠানো হয়েছিল তা এখনো জানা যায়নি। এর পিছনে অন্য কোনো চক্রান্ত রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখছে তদন্তকারীরা। ধৃত ৩ জনকে জেরা করে গোটা বিষয়টি জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। ৩ জনকে আজ আদালতে তুলে নিজেদের হেফাজত চাইবে পুলিশ।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here