চিহ্নিতকরণের জন্যই হােলির রঙ

0

Last Updated on October 8, 2020 11:22 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন: বিজেপির নবান্ন চলো অভিযানের নামে আজ বিজেপির ঝান্ডা হাতে কলকাতার রাস্তায় দাপাদাপি এবং অস্ত্র হাতে গুন্ডামি আটকাতে জলকামান থেকে রঙিন জল ছোঁড়া নিয়ে নানা ধরনের তত্ত্ব খাড়া করতে শুরু করেছেন বিজেপি নেতারা। অথচ শুধু আমাদের রাজ্যে নয় প্রাচীনকাল থেকে আইনভঙ্গকারীদের পৃথকভাবে চিহ্নিত করার জন্য এই ধরনের রঙিন জল ব্যবহার করার প্রথা চলে আসছে পৃথিবীজুড়ে। বিজেপি নেতারা জলকামানের জলে বেগুনি রংয়ের ক্ষতিকারক রাসায়নিক মেশানোর অভিযোগ তুললেও, রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্টভাবে বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন হোলি খেলার জন্য সাধারণ যে রং ব্যবহৃত হয়, এদিনও আইন অমান্য করে পুলিশের উপরে আক্রমণকারীদের আলাদাভাবে চিহ্নিত করার জন্যই পুলিশ জলকামানের জলে সেই রং ব্যবহার করেছে।

- Advertisement -

ইতিহাস বলছে, প্রাচীনকালে লাতিন আমেরিকা এবং মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে যখন ক্রীতদাস প্রথা চালু ছিল, দাস মালিকেরা নিজেদের অধীনস্থ ক্রীতদাসদের আলাদাভাবে চিহ্নিত করার জন্য বিভিন্ন ডিজাইনের লোহা গরম করে ক্রীতদাসদের শরীরে মাংস পুড়িয়ে চিহ্নিতকরণ করতেন। পরবর্তীকালে যুদ্ধের সময়ও বিরোধী সৈন্যদের বন্দি করার পরে অথবা ছদ্মবেশে আসা বিরোধী সৈন্যকে চিহ্নিত করে আক্রমণের সুবিধের জন্য রঙিন জলের ব্যবহার শুরু হয় প্রাচীন ভারতেও। সম্প্রতি দিল্লিতে নাগরিকত্ব আইন বিরোধী আন্দোলনের সময় শাহিনবাগেও প্রতিবাদীদের ছত্রভঙ্গ করতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নিয়ন্ত্রণাধীন দিল্লি পুলিশ এভাবেই জলকামানের জলে রং মিশিয়েছিল। তাই বিজেপির তরফে অন্তত এই ধরনের অভিযোগ একেবারেই শোভা পায় না।আজকেও রাজ্য প্রশাসন এবং পুলিশের যাবতীয় নিষেধাজ্ঞা অগ্রাহ্য করে বিভিন্ন দিক থেকে লুকিয়ে অথবা সিভিক পুলিশের পোশাক পরে ছদ্মবেশে পুলিশ বাহিনীর মধ্যে ঢুকে পড়ে গুলি চালানোর চেষ্টা করতে থাকে বিজেপি কর্মীরা।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here