সুইগিতে অর্ডার দিয়ে খাবার না পেয়ে প্রসেনজিতের চিঠি মমতা, মোদিকে

0

Last Updated on November 6, 2021 9:52 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। অনলাইনে খাবার অর্ডার দিয়ে না পাওয়া, এই বিড়ম্বনায় পড়েছেন অনেকেই। এবার সেই অভিজ্ঞতার শিকার হলেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এই অভিযোগ জানিয়ে খোলা চিঠি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীকে। সেখানে দু’জনকে উৎসবে শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি লেখেন,  আমার একটি সাম্প্রতিক অভিজ্ঞতা আপনাদের জানাতে চাই। গত ৩ নভেম্বর খাবার সরবরাহকারী সংস্থা সুইগিতে একটি অর্ডার দিয়েছিলাম। কিছুক্ষণ পর খাবার দেখানো হয় খাবারটি পৌঁছে দেওয়া হয়েছে, কিন্তু আমি তা পাইনি। বিষয়টি সুইগি কর্তৃপক্ষকে জানানোর পর টাকা ফিরিয়ে দেয় যেহেতু টাকা আগে দেওয়া হয়ে গিয়েছিল। অনলাইনে খাবার না পেয়ে প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রীকে এই খোলা চিঠির কারণ হিসেবে প্রসেনজিৎ জানিয়েছেন,কেউ যদি অতিথিদের জন্য খাবার আনাতে এই ধরনের অ্যাপের উপর নির্ভর করেন এবং সেই খাবার এসেই না পৌঁছয়?কেউ যদি রাতের খাবারের জন্য এই অ্যাপগুলোতেই ভরসা রাখেন? তাঁরা কি অভুক্ত থাকবেন?

- Advertisement -

নিজের টাকা ফেরত পেয়ে গেলেও এই অভিজ্ঞতা সকলের সঙ্গে শেয়ার করার তাগিদ অনুভব করেন অভিনেতা। এর কারণ হিসেবে তিনি জানান, যে কোনও মানুষের এই অভিজ্ঞতা হতে পারে।সুইগি,জোম্যাটোর মতো অনলাইনে খাবার অর্ডারের এই অ্যাপগুলি নিয়ে অভিযোগ নতুন কিছু নয়। বিভিন্ন সময়েই নানা ধরনের ভুলভ্রান্তি বা সমস্যা নিয়ে মুখ খোলেন গ্রাহকেরা। তাতে এই সংস্থার মালিকগণ কতটা সচেতন হন সেটাই বোঝা দায়। কখনও খাবার পৌঁছতে দেরি আবার কখনও ভুল খাবার সরবরাহ, কখনও বা খাবার জায়গামতো না পৌঁছনো এই নিয়ে ফেসবুক-টুইটারে পোস্ট এবং তা ঘিরে তর্ক-বিতর্কও লেগেই থাকে। তবে সাধারণত সংস্থার কাছে বিষয়টি জানালে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই টাকা ফেরত পেয়ে যান গ্রাহক। এ ক্ষেত্রেও আগাম দাম মিটিয়ে দেওয়া টাকা ফেরত পেয়েছিলেন অভিনেতা। কিন্তু ভারতের রাষ্ট্রপ্রধানদের বিষয়টি জানানোর জন্যই তিনি চিঠিটি লিখেছেন বলেই জানা যাচ্ছে।অনলাইনে খাবার অর্ডার দিয়ে না পাওয়ার অভিজ্ঞতা যাতে অন্য কারোর না হয়,সেই কারণেই প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এই সমস্যার কথা খোলাখুলি জানালেন অভিনেতা।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here