বাঙালির দুর্গাপুজোকে ইউনেস্কোর শিরোপা, সাফল্য উদযাপনে শোভাযাত্রা

0

Last Updated on December 22, 2021 10:38 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। রঙিন পোস্টার থেকে বেলুন, হাজির ছিল সবই। আর এরই সঙ্গে ছিল অসংখ্য মানুষ। চলে পদযাত্রা। তাও আবার শহরের রাস্তাজুড়ে। কারণ,সম্প্রতি বাংলার দুর্গাপুজোকে হেরিটেজ আখ্যা দিয়েছে ইউনেস্কো। বাঙালির জন্য গর্ব এর দিন।আর এই বিশেষ তকমার একমাত্র কান্ডারি অবশ্যই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যার সঙ্গে সবাই একমত।আর এই আনন্দকে উদযাপন করতে এই পদযাত্রার আয়োজন।এই পদযাত্রার আয়োজন করলেন কলকাতার বিভিন্ন পুজো কমিটির উদ্যোক্তারা।বুধবার অ্যাকাডেমি অফ ফাইন আর্টসের সামনে থেকে শুরু হয়ে ডোরিনা ক্রসিং পর্যন্ত যায় এই পদযাত্রা।বাংলার দুর্গাপুজো মানেই নানান দেশের স্থাপত্যের আঙ্গিকে মণ্ডপ। আলোকসজ্জায় দেশ বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। ভিনরাজ্য তো বটেই, পৃথিবীর প্রতিটি কোণ থেকে দর্শনার্থীরা আসেন দুর্গাপুজো দেখতে।গত কয়েক মাস আগে ইউনেস্কোর হেরিটেজ তালিকায় স্থান পাওয়ার জন্য আবেদন করেছিল রাজ্য।

- Advertisement -

ডিসেম্বরে এসেছে সেই স্বীকৃতি।শুধু পদযাত্রাই নয় এই স্বীকৃতির আনন্দ উদযাপনে কিছুদিন আগেই অকাল বোধন শুরু হয়েছে তেলেঙ্গাবাগানে।পুজোর মূল উদ্যোক্তা ছিলেন অমল চক্রবর্তী। পুরভোটে ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থী ছিলেন।ইউনেস্কোর ঘোষণা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কুমারটুলি থেকে ঠাকুর নিয়ে আসেন। রাস্তাজুড়ে লাগানো হয় আলোর মেলা। বায়না করা হয় ঢাকিও।উল্লেখ্য, ২০০১ সাল থেকে দেশের একাধিক রাজ্যের সংস্কৃতি ও উৎসব নিয়ে একটি সমীক্ষা শুরু করে ইউনেস্কো। সেই সমীক্ষা অনুয়ায়ী হেরিটেজের তালিকায় স্থান দেওয়া হয়েছে বাংলার দুর্গাপুজোকে। এর আগে কেরলের মুদিয়েট্টু লোকনৃত্যকে স্বীকৃতি দিয়েছে ইউনেস্কো।প্রসঙ্গত, ফ্রান্সের প্যারিসে আয়োজিত হওয়া ইউনেস্কোর ১৬তম অধিবেশনে কলকাতার দুর্গাপুজোকে বিশেষ সাংস্কৃতিক হেরিটেজের তালিকায় যুক্ত করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় এক বার্তায় দুর্গাপুজোকে ইউনেস্কোর ইনট্যানজিবেল কালচার হেরিটেজ তথা অনুনভবনীয় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান দেওয়ার কথা জানানো হয়।এই আনন্দ উৎসব উদযাপন করতেই পদযাত্রার আয়োজন।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here