দেশ জুড়ে প্রবল চাপের মুখে পড়ে বাধ্য হয়ে সুপার ফ্রড সমীরকে সরালো এনসিবি

0

Last Updated on November 6, 2021 12:13 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। নয়াদিল্লি। এনসিবি সুপার কপ সমীর ওয়াংখেড়েকে মুম্বইয়ে নারকোটিক কন্ট্রোল ব্যুরোর দায়িত্ব থেকে অপসারণ করল এনসিবি। শাহরুখপুত্র আরিয়ান গ্রেপ্তারের পরেই শাহরুখের কাছ থেকে ২৫ কোটি টাকা ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ উঠেছে সমীরের বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয় নিজের ধর্ম এবং নাম ভাঁড়িয়ে জালিয়াতি করে কেন্দ্রীয় সরকারি চাকরি পাওয়ার অভিযোগ এর পাশাপাশি বলিউডের সেলিব্রিটিদের মাদক কাণ্ডে ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। আগেই সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য ভিজিল্যান্স তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল এনসিবি। অন্যদিকে মুম্বই পুলিশ ইতিমধ্যেই তিন সদস্যের বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করেছে সমীর ওয়াংখেড়ের বিভিন্ন জালিয়াতির অভিযোগে তদন্ত করার জন্য। তবে এখানেই শেষ নয়, দিল্লিতে এনসিবির সদর দফতর থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে আরিয়ান-সহ মোট পাঁচটি হাইপ্রোফাইল মাদক-মামলা এবার সেন্ট্রাল ইউনিটের হাতে সঁপে দেওয়া হবে। এনসিবির ডেপুটি ডিরেক্টের জেনারেল মুথা অশোক জৈন জানান, ক্রুজ ড্রাগ পার্টি-সহ মোট ছয়টি মামলা মুম্বইয়ে এনসিবি জোনাল টিম-এর থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে দিল্লিতে বিস্তারিত এবং স্বচ্ছ তদন্তের জন্য। এবার থেকে সমীর ওয়াংখেড়ে আর ক্রুজ ড্রাগ মামলার তদন্তকারী দলে থাকছেন না।
এনসিবি সূত্রে জানা গিয়েছে, একটি বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করা হয়েছে, যাঁরা এই ছয় মামলার ট্রান্সফারের জিম্মায় রয়েছে। আগামী রবিবারই মুম্বই এসে পৌঁছাবে সেই টিম। তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার আগে সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে কোন বিবৃতি দিতে না চাইলেও এনসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এই মামলাগুলির সঙ্গে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক প্রভাব জড়িয়ে রয়েছে, এবং এই মামলাগুলিতে একাধিক রাজ্যের যোগ রয়েছে তাই এই কেসগুলি সেন্ট্রাল ইউনিটের হাতে থাকাই বাঞ্ছনীয়। তবে ক্রমাগত ভাজপা নেতৃত্তের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করার মরিয়া চেষ্টায় থাকা সমীর ওয়াংখেড়ে তাঁকে অপসারণের প্রসঙ্গে সাফাই দেন, আমাকে অপসারিত করা হয়নি তদন্তকারী দল থেকে। আমি তো আদালতেই রিট পিটিশনে জানিয়েইছিলাম যে এই তদন্তভার কেন্দ্রীয় টিমের হাতে তুলে দেওয়া হোক। এবার থেকে আরিয়ান খান কেস এবং সমীর খান কেস দিল্লি এনসিবি-র বিশেষ দলের দায়িত্বে থাকবে। এটা এনসিবির দিল্লি ও মুম্বই টিমের মধ্যেকার সমঝোতা।
প্রসঙ্গত, আরিয়ান খান গ্রেফতারের পর থেকেই চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর মুম্বইয়ের জোনাল ডিরেক্টর সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে তোলাবাজির‌অভিযোগ তোলেন এই মামলার এক সাক্ষী প্রভাকর সেইল। মহারাষ্ট্রের সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী নবাব মালিক তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে গত মঙ্গলবার দাবি করেন, এনসিবির এক আধিকারিক একটি চিঠি লিখে অভিযোগ করেছেন যে সমীর কীভাবে ২৬টি ভুয়ো মাদকের মামলায় নির্দোষকে ফাঁসিয়েছেন।

- Advertisement -
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here