ষড়যন্ত্র, মিডিয়া ট্রায়াল, কুৎসার বিরুদ্ধে খামোশ, ৩ লক্ষের রেকর্ড মার্জিনে শত্রুঘ্নর জয়

0

Last Updated on April 16, 2022 9:06 PM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। রেকর্ড ৩ লক্ষেরও বেশি ভোটে জিতছেন শত্রুঘ্নও (Shatrughan Sinha)। কয়লা কাণ্ড নিয়ে ভাজপার লাগাতার কুৎসা, কেন্দ্রীয় এজেন্সি দিয়ে ভয় দেখানো, তৃণমূল তথা বাংলাকে অপদস্থ করার ষড়যন্ত্র- এই যাবতীয় অপচেষ্টার জবাব দিল আসানসোল (Asansol)। ভাজপার গালে লোকসভা উপনির্বাচনে (Asansol Lok Sabha By-poll) থাপ্পড় মারল আসানসোলের মানুষ। তৃণমূলের শত্রুঘ্ন শুধু জিতলেন না গতবারের চেয়ে ১০ শতাংশ কম ভোট পড়লেও তৃণমূল জিতল ৩ লক্ষের ও বেশী ভোটের রেকর্ড মার্জিনে। প্রথমবারের জন্য আসানসোল শিল্পাঞ্চল এল তৃণমূলের (TMC) দখলে। একদিকে ম্যাজিক ম্যান মলয় ঘটকের পিছিয়ে থাকা বিধানসভা গুলোতেও সংগঠন পাকাপোক্ত করে ফেলা ইলেকশন মেকানিজম অন্যদিকে শত্রুঘ্নর ক্যারিশমা, ঘরে ঘরে গিয়ে নিবিড় জনসংযোগ। প্রচারে একবারেও জন্য বিরোধী প্রার্থীকে ব্যক্তিগত আক্রমণ তিনি করেননি। একদিকে মমতার উন্নয়ন, আর অন্যদিকে মোদি সরকারের অনুন্নয়ন তানাশাহী! প্রচারে বার বার তুলে ধরেছেন এই দুই দিক। তাতেই পেলেন আসানসোলের স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থন। জয়ের রেকর্ড গড়ল তৃণমূল। ৩ লক্ষের বেশি ভোটের মার্জিনে জয়ী তৃণমূল প্রার্থী শত্রুঘ্ন সিনহা বলেন, এই জয়ের শিরোপা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee)।

- Advertisement -

আমরা সকলে মিলে আসানসোলের মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দিতে এই ভোটে ঝাঁপিয়ে পড়ে ছিলাম। আসানসোলের এই জয়ের পিছনে রয়েছে তৃণমূলের অসংখ্য কার্যকর্তারা। তার মধ্যে আমিও রয়েছি। আমি এই চ্যালেঞ্জ থেকে নিয়েছিলাম। আর আসানসোলের মানুষ দুহাত তুলে আমাদের সমর্থন করেছেন। এই যে ঐতিহাসিক জয়ের মূল কান্ডারী দেশের জাতীয় নেত্রী এবং বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। অনেক আগে থেকেই এই আসনটি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাওয়া উচিত ছিল। কিন্তু কেন জানি না হয়নি। তবে আমায় নির্দেশ দিয়েছিল সেইমতো আমি কাজ করেছি।হিন্দিতে তিনি বলেন, আন বান শান মে চার চান্দ লাগা দেঙ্গি, জিৎ কা সেহরা মমতাদি ক্যা শরপে যাতি। উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনে এই আসনে ১ লক্ষ ৯৭ হাজার ৬৩৭ ভোটে জয়ী হয়েছিলেন – ভাজপা প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়। বাবুল বাবুল সুপ্রিয় পেয়েছিলেন ৬ লক্ষ ৩৩ হাজার ৩৭৮ টি ভোট। তৃণমূল প্রার্থী মুনমুন সেন পেয়েছিলেন ৪ লক্ষ ৩৫ হাজার ৭৪১ টি ভোট। ২০১৪ সালে সিপিআইএম প্রার্থী বংশগোপাল চৌধুরী পেয়েছিলেন ২ লক্ষ ৫৫ হাজার ৮২৯ টি ভোট। ২০১৯ সালে বাম প্রার্থী গৌরাঙ্গ চট্টোপাধ্যায় সেখান থেকে নেমে আসেন মাত্র ৮৭ হাজার ৬০৮ টি অর্থাৎ বামেদের ভোট সুইং হয়ে বিজেপির দিকে চলে গিয়েছিল। এবার সেই ভোট ফিরে এসেছে তৃণমূলের ঝুলিতে। অন্যদিকে গত ২০২১ সালে আসানসোল লোকসভা অন্তর্গত সাতটি বিধানসভার মধ্যে কুলটি এবং আসানসোল দক্ষিণ কেন্দ্র ছাড়া প্রত্যেকটি বিধানসভাতে ভাজপা পরাজিত হয়েছে।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here