ত্রিপুরা, গোয়ার পর মিশন মেঘালয়, তৃণমূলে ঝুঁকে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা, কং বিধায়করা

0

Last Updated on October 2, 2021 12:10 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। তৃণমূলের সামনে এবারে মিশন মেঘালয়। পশ্চিম ভারতের ভাজপা শাসিত রাজ্য গোয়ার পাশাপাশি উত্তর-পূর্ব ভারতে ত্রিপুরায় ক্ষমতা দখলের জন্য আগেই আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে তৃণমূল। এবারে সেই তালিকায় যুক্ত হয়েছে ভাজপা নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট শাসিত মেঘালয়ের নাম। এর পাশাপাশি গোটা দেশজুড়ে কংগ্রেস হাইকমান্ডের প্রতি দলের নেতাকর্মীদের আস্থা যত কমছে, ভাজপা বিরোধী কংগ্রেসী মনোভাবাপন্ন নেতা ও কর্মীদের কাছে দেশজুড়ে প্রধানতম বিকল্প হিসেবে উঠে আসছে তৃণমূল। এবারে উত্তর-পূর্ব ভারতে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য মেঘালয় এর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্তমান বিরোধী দলনেতা মুকুল তার অনুগামী প্রায় ১৩ কংগ্রেস বিধায়ক সঙ্গে নিয়ে তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন বলে তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গিয়েছে। কয়েকদিন আগেই মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কলকাতায় এসে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর সঙ্গে একান্ত বৈঠক করেন বলে শোনা গিয়েছিল।

- Advertisement -

২০১৮ পর্যন্ত মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন মুকুল সাংমা। এরপর ২০১৮ সালে সরকার পরিবর্তিত হওয়ার পর থেকে বিরোধী দলনেতার দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন তিনি। ২০১৮ সালে মেঘালয় বিধানসভার নির্বাচনে কংগ্রেস একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে ২১ আসনে জিতেছিল। ভাজপা জিতেছিল মাত্র দুটি বিধানসভা কেন্দ্রে। কিন্তু কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্বের সময়োচিত পদক্ষেপ এবং নির্দেশের অভাবে কংগ্রেসের আগেই সরকার গঠনের দাবি জানায় ভাজপা। এরপর থেকেই কংগ্রেসের নেতৃত্তের বিরুদ্ধে ক্ষোভে দল ছেড়েছেন পোকো কংগ্রেস নেতা ও কর্মী। সম্প্রতি ভাজপা কে হারিয়ে বাংলায় তৃতীয়বার তৃণমূল সরকার গঠনের পরে মমতাজ এভাবে আগামী লোকসভা নির্বাচনে ভাজপাকে টক্কর দিতে উঠে পড়ে লেগেছেন সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে, সেই সুযোগ হাতছাড়া না করতেছে তৃণমূলে যোগ দিতে চান কংগ্রেসের এই প্রবীণ নেতা। সম্প্রতি সুস্মিতা দেবের মেঘালয় সফরের পর থেকেই মুকুল সাংমার দল বদলের জল্পনা তীব্র আকার ধারণ করেছে।
দেশের বিভিন্ন রাজ্যে শীর্ষস্তরের কংগ্রেস নেতারা কেন তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন এই প্রশ্নের জবাবে দিন কয়েক আগেই গোয়ার প্রাক্তন কংগ্রেসের মুখ্যমন্ত্রী
লুইজিনহো ফেলেইরো জানান, কংগ্রেস পরিবার টুকরো টুকরো হয়ে গিয়েছে। একাধিক দল গড়ে উঠেছে। এটাই সেরা সময় কংগ্রেস পরিবারকে একত্রিত হয়ে ভাজপা বিরোধী লড়াইয়ের। লড়াইয়ে দিদির উদ্যম রয়েছে। হার না মানা মানসিকতা ওনার। নেতৃত্ব জন্য যোগ্য তিনি।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here