পুরভোটে তৃণমূলের ইস্তেহার কলকাতার ১০ দিগন্ত প্রতি ওয়ার্ডে আর্বান ফরেস্ট, অতিরিক্ত ২০০ পাম্প

0

Last Updated on December 12, 2021 12:01 AM by Khabar365Din

৩৬৫ দিন। কলকাতার ১০ দিগন্ত, অর্থাৎ নাগরিক পরিষেবার উন্নতির দশদিক মাথায় রেখেই কলকাতা পুরভোটের ইস্তেহার প্রকাশ করল তৃণমূল। স্বাস্থ্যকেন্দ্রের পরিষেবার উন্নতি থেকে শুরু করে মহিলা নিরাপত্তায় নজর – এসব দিকেই জোর দেওয়া হয়েছে ইস্তেহারে তবে তার মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য – কলকাতা পুরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডে মহিলাদের জন্য শৌচালয়। শনিবার দুপুরে মহারাষ্ট্র নিবাস থেকে দলীয় ইস্তেহার প্রকাশ করলেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি, দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, বিদায়ী পুর বোর্ডের প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম, লোকসভার দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্যরা। বাংলা ছাড়াও হিন্দি, উর্দু ও ইংরাজি ভাষায় প্রকাশ করা হয়েছে ইস্তেহারটি। এছাড়া কলকাতা শহরের জল জমার সমস্যাকে মাথায় রেখে নাগরিকদের সুবিধায় তা দ্রুত সমাধানের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে ইস্তেহারে। ফের পুরসভায় তৃণমূল ক্ষমতায় এলে আরও ২০০ টি পাম্প বসানো হবে শহরে। ইস্তেহারে আর কী কী রয়েছে, দেখে নিন একঝলকে –

- Advertisement -

১. পাড়ায় সমাধান অ্যাপ- একটি নতুন মোবাইল অ্যাপ চালু করা হবে যেখানে নাগরিকেরা অ্যাপে যেকোনো খারাপ রাস্তার নর্দমা বা ভ্যাটের একটি ভিডিও যুক্ত ছবি আপলোড করতে পারবেন। ১৪ দিনের মধ্যে সমস্যার সমাধান করা হবে।
২. নিষ্পত্তি সেল–কোন সমস্যার সমাধান করতে হলে প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে নিষ্পত্তি সেল গঠন করা হবে।

৩. আরবান ফরেস্ট–প্রতিবারে যেখানে জায়গা পাওয়া যাবে সেখানেই কৃত্তিম ভাবে ফরেস্ট গঠন করা হবে। ‌ পর্যাপ্ত জলের ব্যবস্থা থাকবে চারধারে। ‌

৪. নিকাশি ব্যবস্থার জোর–বৃষ্টিপাত বেশি হওয়ার কারণে জল জমলে সেই জল সরাতে, বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া হবে। ২০০ টি পাম্প সরবরাহ করার পাশাপাশি লাইনগুলির মানোন্নয়ন করা হবে। ব্লকেজ মুক্ত নর্দমা এবং অধিকার পুনরুদ্ধার করা হবে।

৫. প্রতি বাড়িতে পানীয় জল-শহরের প্রত্যেকটি বাড়িতে পরিস্রুত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়া হবে। ‌

৬. শহরের দ্বিগুণ স্বাস্থ্য কেন্দ্র-১৪৪ ওয়ার্ডে কার্য ক্ষমতা দ্বিগুণ করার পাশাপাশি স্বাস্থ্যকেন্দ্র দ্বিগুণ পরিমাণ স্থাপন করা হবে। ‌ কলকাতাকে ডেঙ্গু মুক্ত করা হবে। ‌

৭. মডেল দরিদ্র পল্লী–মর্যাদাপূর্ণ জীবনযাত্রা নিশ্চিত করার জন্য শৌচালয় আচ্ছাদিত নর্দমা নিয়মিত জল সরবরাহ সহ সকল সুবিধার মাধ্যমে দরিদ্র পল্লীর অঞ্চলভিত্তিক চিহ্নিতকরণ এবং নাগরিক সুবিধার মানোন্নয়ন করা হবে।

  1. ৮. হেরিটেজ ওয়াক- কলকাতার চারপাশে ফ্লাগশিপ হেরিটেজ ওয়াক চালু করা, ঐতিহ্যবাহী ভবন এবং ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক গুরুত্বের স্থান গুলির সঙ্গে পর্যটক এবং উৎসাহীদের পরিচয় করানো হবে। ‌ এদিন ইস্তেহার প্রকাশের অনুষ্ঠানে কলকাতা পুরসভার ১৪৪ টি ওয়ার্ডের প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের আরও একবার ভোটের লড়াইয়ে নামার আগে চাঙ্গা করে দিলেন দলের শীর্ষ নেতারা। পার্থ চট্টোপাধ্যায় বললেন,যাঁরা নির্বাচিত হবেন, তাঁরা মনে রাখবেন, যেন সারাবছর এলাকায় আপনাদের দেখা যায়।–সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন,আত্মতুষ্টি নয়, সকলে একত্রিত হয়ে নির্বাচনী লড়াইয়ে নামুন। আগামী ১৯ ডিসেম্বর কলকাতায় পুরভোট, ২১ তারিখ ফলপ্রকাশ। আর তারপরই বিজয় উৎসব পালন করবে তৃণমূল।
Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here