শহরের যত্রতত্র ঢেকেছে বিজ্ঞাপনে,জলাভূমির উপর হোর্ডিং নিষিদ্ধ করেছে পুরসভা

0

Last Updated on August 6, 2022 10:45 PM by Khabar365Din

- Advertisement -

৩৬৫ দিন। গোটা শহরেই ছেয়ে গিয়েছে বিজ্ঞাপন হোর্ডিংয়ে।মা ফ্লাইওভার থেকে বাইপাসমুখী রাস্তা দিয়ে যেতে গেলেই চোখে পড়বে অজস্র হোর্ডিং।তবে দৃশ্যদূষণ রুখতে এবার পদক্ষেপ নিচ্ছে কলকাতা পুরসভা।মূলত জলাভূমির উপর থাকা হোর্ডিং নিষিদ্ধ করতে চলেছে পুরসভা।

সেই সঙ্গে শহরে চালু হচ্ছে ইউনিপোল হোর্ডিং। নির্দিষ্ট দূরত্বে পরপর একটি পোল থাকবে। এই হোর্ডিং পোলের মাপ সমান থাকবে বলে জানিয়েছেন দেবাশিস কুমার।এছাড়াও একটি বিজ্ঞাপন নীতি আনা হচ্ছে।এমন সিদ্ধান্তের কথাই জানিয়েছেন মেয়র পারিষদ দেবাশীস কুমার।সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে পুজোর আগেই এই বিজ্ঞাপন নীতি চালু করা হবে।এর ফলে শহরে দৃশ্য দূষণ অনেকটা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে বলে মনে করছে কলকাতা পুরসভার অধিকারিকরা।

বৃহস্পতিবার এই বিষয়ে বিভাগীয় আধিকারিক জানান,শহরের বহু জায়গায় হোর্ডিং ছড়িয়ে রয়েছে।এরকম কয়েকটির বিরুদ্ধে আমার পদক্ষেপ নিয়েছি।এছাড়াও বাইপাসের ধারে জলাভূমির উপরে থাকা হোর্ডিংও খুলে ফেলা হবে।সূত্র মারফত জানা গিয়েছে,হেরিটেজ ভবন থেকে বিভিন্ন বিজ্ঞাপনের হোর্ডিং সরিয়ে নেওয়া হবে।অন্যান্য বিশেষ বিশেষ জায়গা থেকেও সরানো হবে বিজ্ঞাপন।নয়া বিজ্ঞাপন নীতির খসড়া প্রায় ৫২ পাতার।

সূত্রের খবর,নজর দেওয়া হয়েছে জলাভূমিতেও দৃশ্য দূষণ রোধে।চালু হতে চলেছে ইউনিপোল হোর্ডিং ব্যবস্থা।কী এই ইউনিপোল হোর্ডিং?মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার (বিজ্ঞাপন) জানাচ্ছেন, নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে একটি করে সমান মাপের পোল থাকবে, সেখানে থাকবে বিজ্ঞাপনের ব্যবস্থা।জানা গিয়েছে, পুরসভার পক্ষ থেকে জোর দেওয়া হচ্ছে ডিজিট্যাল বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে। চিহ্নিত করা হয়েছে হোর্ডিং এবং নন হোর্ডিং জোন।জানা গিয়েছে, গত বুধবার বিজ্ঞাপন নীতি নিয়ে জরুরি বৈঠক ডেকেছিলেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। সেখানেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সূত্রের খবর অনুযায়ী,হেরিটেজ ভবন ছাড়াও ধর্মতলা সহ একাধিক জায়গা থেকে সরতে পারে বিজ্ঞাপন।আরও জানা গিয়েছে, পুজোর আগেই চালু হতে পারে নয়া এই নীতি।সূত্রের খবর,হেরিটেজ ভবন ছাড়াও ধর্মতলা, বিবাদী বাগ প্রভৃতি চত্বরে বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।যদিও খসড়া নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।

মেয়র পারিষদ জানিয়েছেন, এনিয়ে আলোচনা চলছে।সে ক্ষেত্রে আরও পরিবর্তন বা সংযোজন হতে পারে।এর জন্য এজেন্সি থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞ সকলের কাছে প্রস্তাব নেওয়া হচ্ছে।সবমিলিয়ে পুজোর আগে এই বিজ্ঞাপন নিতে চালু করতে চাইছে কলকাতা পুরসভা।

Advertisement

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here